বায়ুচাপ বলয় কাকে বলে

বায়ুচাপ বলয় কাকে বলে

index 3
বায়ুচাপ বলয় কাকে বলে

ভূপৃষ্ঠের কতকগুলি নির্দিষ্ট স্থানে প্রায় সারা বছর ধরে বায়ুর উচ্চচাপ ও নিম্নচাপ লক্ষ করা যায় । বায়ুর এই উচ্চচাপ ও নিম্নচাপ এক একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে পৃথিবীকে যেন বলয়ের মতাে ঘিরে আছে । এগুলিকেই বায়ুচাপ বলয় বলা হয় । 

বায়ুচাপ বলয় কয়টি

চাপের তারতম্য অনুসারে  ভূপৃষ্ঠে মােট সাতটি বায়ুচাপ বলয় আছে । এগুলি হল — 

( ১ ) নিরক্ষীয় নিম্নচাপ বলয় , ( ২ ) উত্তর গোলার্ধে উপক্রান্তীয় বা কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয় , ( ৩ ) দক্ষিণ গোলার্ধে উপক্রান্তীয় বা মকরীয় উচ্চচাপ বলয় , ( ৪ ) সুমেরুবৃত্ত প্রদেশীয় নিম্নচাপ বলয় , ( ৫ ) কুমেরু বৃত্ত প্রদেশীয় নিম্নচাপ বলয় , ( ৬ ) সুমেরু উচ্চচাপ বলয় এবং ( ৭ ) কুমেরু উচ্চচাপ বলয় ।

নিরক্ষীয় নিম্নচাপ বলয় :

নিরক্ষরেখার দু-দিকে ১০° অক্ষরেখার মধ্যে সারা বছর ধরে বায়ুর নিম্নচাপ দেখা যায় । প্রধানত তিনটি কারণে এই নিম্নচাপ বলয়টি সৃষ্টি হয়েছে— ( i ) এই অঞ্চলে সারা বছর সূর্যরশ্মি লম্বভাবে পড়ে বলে বায়ু সারা বছরই উ‌ষ্ণ ও হালকা , ( ii ) এখানে জলভাগ বেশি বলে বায়ুতে জলীয় বাষ্পও বেশি এবং ( iii ) পৃথিবীর আবর্তন গতির জন্য নিরক্ষীয় অঞ্চলের ওপরের বায়ু উত্তর ও দক্ষিণে ছিটকে যায় অর্থাৎ বায়ুর ঘনত্ব কমে যায় । নিরক্ষীয় নিম্নচাপ বলয়ের আর এক নাম নিরক্ষীয় শান্ত বলয়

উত্তর গোলার্ধে উপক্রান্তীয় বা কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয় এবং দক্ষিণ গোলার্ধে উপক্রান্তীয় বা মকরীয় উচ্চচাপ বলয় :

নিরক্ষীয় নিম্নচাপ অঞ্চলের দু-দিকে প্রায় ২৫° থেকে ৩৫° উত্তর ও দক্ষিণ অক্ষরেখার মধ্যে বায়ুমণ্ডলে দুটি উচ্চচাপ বলয় আছে । এই দুটি উচ্চচাপ বলয় সৃষ্টি হওয়ার কারণ — ( i ) নিরক্ষীয় অঞ্চলের যে উ‌ষ্ণ ও আর্দ্র বায়ু ক্রমশ ওপরে ওঠার পর ঠান্ডা ও ভারী হয় এবং পৃথিবীর আবর্তন গতির জন্য উত্তর ও দক্ষিণে ছিটকে যায় , সেই বায়ু ধীরে ধীরে সংকুচিত হয়ে ২৫° থেকে ৩৫° অক্ষরেখা বরাবর নীচের দিকে নেমে আসে । এছাড়া ( ii ) পৃথিবীর আবর্তন গতির জন্য দুই মেরু অঞ্চল থেকে যে ঠান্ডা ও ভারী বাতাস নিরক্ষীয় অঞ্চলের দিকে প্রবাহিত হয় , তারও কিছু অংশ এখানে আসে । এই দুটি কারণে উভয় গােলার্ধে ২৫° থেকে ৩৫° অক্ষরেখার মধ্যে বায়ুর ঘনত্ব বেড়ে যায় , সৃষ্টি হয় উচ্চচাপ । উপক্রান্তীয় উচ্চচাপ বলয়কে উপক্রান্তীয় শান্ত বলয় বা অশ্ব অক্ষাংশ বলা হয় ।

সুমেরুবৃত্ত প্রদেশীয় নিম্নচাপ বলয় এবং কুমেরু বৃত্ত প্রদেশীয় নিম্নচাপ বলয় :

দুই মেরুবৃত্ত প্রদেশের নিকটবর্তী অঞ্চলে অর্থাৎ ৬০° থেকে ৭০° অক্ষরেখার মধ্যে বায়ুর চাপ কম । এই অঞ্চলের বায়ুমণ্ডলে নিম্নচাপ সৃষ্টি হওয়ার কারণ— ( i ) পৃথিবীর আবর্তনের গতিবেগ দুই মেরুর তুলনায় মেরুবৃত্ত অঞ্চলে বেশি । এজন্য এই অঞ্চলের বায়ু বেশি পরিমাণে ছিটকে বেরিয়ে যায় । ( ii ) দুই মেরু অঞ্চল থেকে বায়ুপ্রবাহ মেরুবৃত্ত অঞ্চলে পৌঁছে আয়তনে বেড়ে যায় । এজন্য দুই মেরুবৃত্ত প্রদেশে বায়ুর ঘনত্ব কম , সুতরাং চাপও কম ।

সুমেরু উচ্চচাপ বলয় এবং কুমেরু উচ্চচাপ বলয় :

উত্তর মেরু ও দক্ষিণ মেরুর সংলগ্ন এলাকায় বায়ুর চাপ বেশি । কারণ— ( i ) ওই এলাকায় প্রচণ্ড ঠান্ডার জন্য বায়ু সব সময় ঠান্ডা , সুতরাং ভারী ‌। ( ii ) বাষ্পীভবন খুব কম বলে বায়ুতে জলীয় বাষ্পও কম । ( iii ) পার্শ্ববর্তী মেরুবৃত্ত অঞ্চলের নিম্নচাপ বলয় থেকে যে বায়ু ওপরে ওঠে , তার কিছু অংশ মেরু অঞ্চলে নেমে আসে । এই তিনটি কারণে দুই মেরুর সংলগ্ন এলাকায় বায়ুর ঘনত্ব বেশি , সুতরাং চাপও বেশি ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!