অবঘর্ষ প্রক্রিয়া কাকে বলে

অবঘর্ষ প্রক্রিয়া কাকে বলে

অবঘর্ষ ’ কথাটির অর্থ ‘ ঘর্ষণ জনিত ক্ষয় ’। সাধারণভাবে বলা যায় , নদী , হিমবাহ , বায়ুপ্রবাহ প্রভৃতি প্রাকৃতিক শক্তির দ্বারা পরিবাহিত শিলাখণ্ডের সঙ্গে সংঘর্ষে বা ঘর্ষণে যখন ভূপৃষ্ঠের শিলাস্তর ক্ষয়প্রাপ্ত হয় , তাকে তখন বলে অবঘর্ষ । যেমন — পার্বত্য প্রবাহে নদীবাহিত পাথরগুলির সঙ্গে নদীখাতের ঘর্ষণের ফলে নদীখাত ক্ষয়ে যায় এবং নদীখাতে ছােটো বড়াে নানা আকৃতির গর্ত বা মন্থকূপের সৃষ্টি হয় । নদীর এই ধরনের ক্ষয়কার্যকে বলে অবঘর্ষ । 

আবার , হিমবাহের ক্ষেত্রে দেখা যায় , হিমবাহের সঙ্গে যেসব পাথর আটকে থাকে সেগুলির সঙ্গে হিমবাহ-উপত্যকা বা পর্বতগাত্রের সংঘর্ষের ফলে উপত্যকা ক্রমশ ক্ষয়প্রাপ্ত ও মসৃণ হয় । একেও বলে অবঘর্ষ । 

এছাড়া , মরু অঞ্চলে প্রবলবেগে প্রবাহিত বায়ুর মধ্যে ছােটো ছােটো পাথরখণ্ড এবং নানা আকার ও আয়তনের শক্ত কোয়ার্টজ কণা বা বালি থাকে । ওই বায়ুর সঙ্গে যখন মরু অঞ্চলের শিলাস্তরের ঘর্ষণ লাগে , তখন শিলাস্তর তাড়াতাড়ি ক্ষয়ে যায় এবং ঘর্ষণের জন্য শিলাস্তরের গায়ে কোথাও আঁচড় কাটার মতাে দাগ , কোথাও মৌচাকের কুঠুরির মতাে অসংখ্য ছিদ্র হয় । এই ধরনের ক্ষয়কেও অবঘর্ষ বলে ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!