গিরিখাত ও ক্যানিয়নের মধ্যে পার্থক্য

গিরিখাত ও ক্যানিয়নের মধ্যে পার্থক্য

v shaped valleys and interlocking spurs 6 638
গিরিখাত ও ক্যানিয়নের মধ্যে পার্থক্য

গিরিখাত ও ক্যানিয়ন উভয়ই অত্যন্ত সুগভীর ও সংকীর্ণ হয় এবং উভয়ই সৃষ্ট হয় নদীর ক্ষয় কার্যের ফলে । তবে উভয়ের মধ্যে কিছু পার্থক্যও আছে । যেমন — 

( ১ ) গিরিখাত খুব গভীর ও সংকীর্ণ হয়ে ইংরেজি অক্ষর ‘ V ’- আকৃতির হয় । অন্যদিকে , ক্যানিয়ন অত্যন্ত সুগভীর এবং খুব বেশি সংকীর্ণ হয় বলে ইংরেজি অক্ষর ‘ I ’ আকৃতির হয় । 

( ২ ) গিরিখাত সৃষ্ট হয় নদীর উচ্চগতিতে বৃষ্টিবহুল পার্বত্য অঞ্চলে । কিন্তু ক্যানিয়ন সৃষ্ট হয় বৃষ্টিহীন শুষ্ক বা মরুপ্রায় উচ্চভূমি অঞ্চলে । 

( ৩ ) গিরিখাতে নদীর পার্শ্বক্ষয় অপেক্ষা নিম্নক্ষয় বেশি হলেও বৃষ্টিবহুল অঞ্চলে সৃষ্ট হয় বলে নদীর দুই পাড়ের ক্ষয়ও কিছু কিছু চলতে থাকে এবং কিছু উপনদী এসেও নদীখাতে মিলিত হয় । এজন্য নদীখাত ‘ V ’- আকৃতির হয় । কিন্তু , ক্যানিয়ন সৃষ্ট হয় সেইসব নদীতে যেগুলির উৎপত্তি প্রধানত তুষার গলা জলে এবং প্রবাহিত হয় শুষ্ক বা মরুপ্রায় অঞ্চলের ওপর দিয়ে । সুতরাং , এখানে নদীতে উপনদী এসে মিলিত হয় না বললেই চলে । প্রথমত বৃষ্টিপাতের অভাব এবং দ্বিতীয়ত নদীর সীমিত জল — উভয় কারণেই নদীর দুই পাড়ের ক্ষয় এবং পার্শ্বক্ষয় প্রায় বন্ধ থাকে , কেবল নিম্নক্ষয় চলতে থাকে । তাই নদীখাত ‘ I ’- আকৃতির হয় ।।

Leave a Comment

error: Content is protected !!