যান্ত্রিক ও রাসায়নিক আবহবিকার এর পার্থক্য

যান্ত্রিক ও রাসায়নিক আবহবিকার এর পার্থক্য

যান্ত্রিক আবহবিকার 

[ ১ ] উষ্ণতা , বৃষ্টিপাত , তুষার প্রভৃতি আবহাওয়ার বিভিন্ন উপাদানের মাধ্যমে যান্ত্রিক বা স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় ভূপৃষ্ঠের শিলাসমূহ চূর্ণবিচূর্ণ হলে তাকে বলে যান্ত্রিক আবহবিকার । 

[ ২ ] যান্ত্রিক আবহবিকারের ফলে শিলার শুধু আকৃতিগত বা ভৌত পরিবর্তন হয় অর্থাৎ শিলাটি শুধু ছােটো ছােটো খণ্ডে বিভক্ত হয় , শিলার বিভিন্ন উপাদানের ধর্ম একই থাকে । 

[ ৩ ] যান্ত্রিক আবহবিকারের কয়েকটি প্রক্রিয়া হল এক্সফোলিয়েশন , প্রস্তর বিশরণ , ক্ষুদ্রকণা বিশরণ প্রভৃতি ।

[ 4 ] উষ্ণ মরু অঞ্চল এবং মরুপ্রায় অঞ্চলে যান্ত্রিক আবহবিকার বেশি হয় । এছাড়া , শীতপ্রধান অঞ্চল ও শুষ্ক নাতিশীতােষ্ণ অঞ্চলে যান্ত্রিক আবহবিকারের সক্রিয়তা দেখা যায় ।

রাসায়নিক আবহবিকার 

[ ১ ] যখন জলীয় বাষ্প বা জলের মাধ্যমে শিলাসমূহের খনিজ পদার্থ দ্রবীভূত , বিচ্ছিন্ন ও পরিবর্তিত হয়ে যায় , তখন তাকে রাসায়নিক আবহবিকার বলে । 

[ ২ ] রাসায়নিক আবহবিকারের ফলে শিলার মৌলিক খনিজ পদার্থগুলি রূপান্তরিত হয়ে গৌণ বা যৌগিক খনিজ পদার্থে পরিণত হয় । শিলার বিভিন্ন উপাদানের ধর্ম পরিবর্তিত হয় । 

[ ৩ ] কার্বোনেশন , অক্সিডেশন , হাইড্রেশন প্রভৃতি হল রাসায়নিক আবহবিকারের বিভিন্ন প্রক্রিয়া ।

[ 4 ] উষ্ণ-আর্দ্র জলবায়ু অঞ্চলে রাসায়নিক আবহবিকার বেশি হয় ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!