নিরাপত্তা পরিষদের গঠন ক্ষমতা ও কার্যাবলী

নিরাপত্তা পরিষদের গঠন ক্ষমতা ও কার্যাবলী

নিরাপত্তা পরিষদের গঠন ক্ষমতা ও কার্যাবলী

নিরাপত্তা পরিষদের গঠন

জাতিপুঞ্জের অধীনস্থ যে পরিষদের উপর শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষার প্রাথমিক দায়িত্ব অর্পিত হয়েছে তাই হলো নিরাপত্তা পরিষদ । জাতিপুঞ্জের সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ ও সবচেয়ে ক্ষমতাবান বিভাগ হলো নিরাপত্তা পরিষদ। সনদের 23 ও 32 নম্বর ধারায় নিরাপত্তা পরিষদের গঠন ও কার্যাবলী বর্ণিত আছে । 

সদস্য রাষ্ট্রের প্রকৃতি :

স্থায়ী ও অস্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদ গঠিত। প্রথম স্থায়ী ও অস্থায়ী সদস্য নিয়ে জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদ গঠিত হয়েছিল। 

সদস্য রাষ্ট্রের সংখ্যা :

1966 খ্রিস্টাব্দ থেকে অস্থায়ী সদস্য সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়ে 10 হ‌ওয়ায় বর্তমানে এর মোট সদস্য সংখ্যা 15 । নিরাপত্তা পরিষদের বর্তমান স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্রগুলো হলো — আমেরিকা , ইংল্যান্ড , প্রজাতন্ত্র ও গণপ্রজাতন্ত্রী চীন আর সাধারণ সভা কর্তৃক দু বছরের জন্য নির্বাচিত হয়।

নিরাপত্তা পরিষদের ক্ষমতা 

নিরাপত্তা পরিষদকে বলা যেতে পারে জাতিপুঞ্জের কার্যনির্বাহক সমিতি । জাতিপুঞ্জের সনদের 7,8, ও 12 অধ্যায়ে বিস্তারিত ভাবে নিরাপত্তা পরিষদের ক্ষমতা উল্লেখ রয়েছে। যেমন —

শান্তি ও নিরাপত্তা রক্ষা :

বিশ্বজুড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও নিরাপত্তা রক্ষার মূল দায়িত্ব জাতিপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের উপর অর্পিত রয়েছে। বিশ্বের কোথাও শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে কিনা তা দেখার দায়িত্ব নিরাপত্তা পরিষদের । 

ক্ষমতা :

আন্তর্জাতিক শান্তি রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আর্থিক অবরোধ ঘোষণা করার ক্ষমতা এমনকি শান্তি ভঙ্গকারি রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে সামরিক শক্তি প্রয়োগের ক্ষমতা রয়েছে নিরাপত্তা পরিষদের। 

ভেটো ক্ষমতা :

15 সদস্য রাষ্ট্রের প্রত্যেকের একজন করে প্রতিনিধি থাকে। প্রত্যেকের জন্য একটি করে ভোট‌ই নির্ধারিত। তবে স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্রের প্রত্যেকের ‘ ভেটো ’ দেওয়ার অধিকার আছে। যেকোন প্রস্তাবকে ‘ ভেটো ’ দিয়ে তারা বাতিল করতে পারে।

নিরাপত্তা পরিষদের কার্যাবলী 

নিরাপত্তা পরিষদের সাংগঠনিক কার্য সম্পাদনের দায়িত্ব‌ও পালন করে ।

সদস্যপদ বিষয়ক :

নিরাপত্তা পরিষদের সুপারিশ ছাড়া যেমন জাতিপুঞ্জের সদস্য হওয়া যায়না , তেমনি পরিষদ কোন রাষ্ট্রের সদস্যপদ নাকচ‌ও করে দিতে পারে ।

সুপারিশ মূলক :

সুপারিশ ক্রমে সাধারণ সভা রাষ্ট্রসঙ্ঘের ‘ মহাসচিব ’ (secretary-general ) নির্বাচন করে থাকে ।

বলপ্রয়োগ সংক্রান্ত :

আন্তর্জাতিক শান্তি ও নিরাপত্তার স্বার্থে নিরাপত্তা পরিষদ প্রয়োজনে বলপ্রয়োগের মাধ্যমে বিরোধের নিষ্পত্তি করতে পারে। 

অছি সম্পর্কিত : 

অছি ব্যবস্থার অন্তর্ভুক্ত সামরিক দিক থেকে গুরুত্বপূর্ণ অঞ্চল গুলির ক্ষেত্রে জাতিপুঞ্জের যাবতীয় দায়দায়িত্ব পালন করে থাকে নিরাপত্তা পরিষদ

Leave a Comment

error: Content is protected !!