1935 সালের ভারত শাসন আইন কী

1935 সালের ভারত শাসন আইন কী

সাইমন কমিশনের প্রতিবেদন ( ১৯৩০ খ্রি. মে ) মেনে এবং গান্ধীজীর আইন অমান্য আন্দোলনের ( ১৯৩০ খ্রি. ) পরিপ্রেক্ষিতে লন্ডনে অনুষ্ঠিত তিনটি গােলটেবিল বৈঠকের ( নভেম্বর ১৯৩০ খ্রি. – নভেম্বর ১৯৩২ খ্রি. ) ফলশ্রুতি হল ১৯৩৫ খ্রিস্টাব্দের ভারত শাসন আইন ( Government of India Act ) । 

1935 সালের ভারত শাসন আইনের দুটি মুখ্য প্রস্তাব

এই আইনের দুটি প্রধান প্রস্তাব হল 一

1. দেশীয় রাজ্যগুলি এবং ব্রিটিশ ভারতের বিভিন্ন প্রদেশ নিয়ে একটি সর্বভারতীয় যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামাে এবং 

2. প্রাদেশিক স্বায়ত্ত শাসন কাঠামাে গঠন ।

সর্বভারতীয় যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামো :

ভারত শাসন আইন অনুযায়ী কেন্দ্রে দ্বৈত শাসন চালু হয় । স্থির হয় — 

1. যুক্তরাষ্ট্রের শাসনভার গভর্নর জেনারেল ও এক মন্ত্রীসভার হাতে অর্পিত থাকবে । 

2. কেন্দ্রীয় সরকারের শাসন কার্য ‘ সংরক্ষিত ’ ( Reserved ) ও ‘ হস্তান্তরিত ’ ( Transferred ) — এই দুই ভাগে বিভক্ত থাকবে । 

3. দেশীয় রাজন্যবর্গ ইচ্ছে করলে এই যুক্তরাষ্ট্রে যােগদান করতে পারেন , অর্থাৎ যােগদান বাধ্যতামূলক নয় । 

4. ভাইসরয় জেনারেলের মন্ত্রী পরিষদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রীয় শাসনভার অর্পিত হবে । 

5. গভর্নর জেনারেল তাঁর কাজের জন্য ভারত সচিব ও ব্রিটিশ পার্লামেন্টের কাছে দায়বদ্ধ থাকবেন । 

6. এই আইনের বলে কেন্দ্রীয় ও প্রাদেশিক সরকারের মধ্যে ক্ষমতা বণ্টনের লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় তালিকা , প্রাদেশিক তালিকা এবং যুগ্ম তালিকা প্রকাশিত হয় ।

প্রাদেশিক স্বায়ত্ত শাসন কাঠামো :

এতে বলা হয়— 

1. প্রদেশগুলিতে দ্বৈত শাসনের পরিবর্তে স্বায়ত্ত শাসন ব্যবস্থা প্রবর্তিত হবে । 

2. গভর্নরের হাতে প্রদেশের সর্বোচ্চ ক্ষমতা থাকবে । গভর্নরকে কাজে সাহায্য করবে একটি মন্ত্রীসভা । 

3. প্রাদেশিক গভর্নরের হাতে থাকবে আইন প্রবর্তন , আইন প্রণয়ন ও বাতিল করার ক্ষমতা । 

4. মুসলিম ও তপশিলি হিন্দুদের আলাদা নির্বাচন নীতি গৃহীত হবে এবং খ্রিস্টান ও অ্যাংলাে ইন্ডিয়ানদের আসন সংরক্ষণ স্বীকৃতি পাবে ।

1935 সালের ভারত শাসন আইনের দোষ ত্রুটি

এই আইনে — 

1. প্রকৃত স্বায়ত্ত শাসনের অধিকার থেকে দেশবাসীকে বঞ্চিত করা হয় ; 

2. ব্রিটিশ ভারতের মােট জনসংখ্যার মাত্র ১৪ % -কে ভােটদানের অধিকার দেওয়া হয় ; 

3. ভাইসরয়ের হাতে অতিরিক্ত ক্ষমতা দেওয়া হয় ; 

4. যুক্তরাষ্ট্র গঠনের ব্যাপারটি দেশীয় রাজ্যগুলির ইচ্ছার ওপর সম্পূর্ণরূপে ছেড়ে দেওয়া হয় ; 

5. পৃথক নির্বাচনের মাধ্যমে সাম্প্রদায়িকতাকে প্রশ্রয় দেওয়া হয় । এইসব কারণে ভারতের কোনাে রাজনৈতিক দলই ভারত শাসন আইন ( ১৯৩৫ খ্রি. ) – কে সমর্থন করেনি ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!