স্টোলিপিন সংস্কার কী

স্টোলিপিন সংস্কার কী

img000
স্টোলিপিন সংস্কার কী

১৯০৬ থেকে ১৯১১ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত পিটার স্টোলিপিন ছিলেন রাশিয়ার জার দ্বিতীয় নিকোলাসের প্রধানমন্ত্রী । স্বৈরাচারী জারতন্ত্রের সমর্থক হয়েও কৃষক-শ্রমিকদের উন্নতিকল্পে তিনি রাশিয়ার আর্থসামাজিক ক্ষেত্রে কিছু সংস্কার সাধনের জন্য একটি আইন পাস করেন , যা ‘ স্টোলিপিন সংস্কার ’ নামে পরিচিত । ঐতিহাসিক ওর্গানস্কি ( Organsky ) স্টোলিপিনের ভূমি সংস্কার আইনের প্রশংসা করে বলেন জার দ্বিতীয় আলেকজান্ডারের ভূমিদাস উচ্ছেদ আইনের পর উল্লেখযােগ্য ছিল স্টোলিপিনের ভূমি সংস্কার আইন । 

স্টোলিপিন এর বিভিন্ন সংস্কার

স্টোলিপিনের সংস্কার গুলির মধ্যে উল্লেখযােগ্য ছিল —  

1. শ্রমিকদের জন্য জীবন বিমার প্রবর্তন ; 

2. ট্রেড ইউনিয়নকে আইন সংগত বলে স্বীকৃতি দেওয়া ; 

3. শিক্ষা ব্যবস্থার প্রসারে নতুন নতুন প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় গঠন ;

4. কৃষকদের দুরবস্থা লাঘবে মীরগুলির কাছ থেকে জমির মালিকানা কেড়ে নিয়ে কৃষকদের ফিরিয়ে দেওয়া । ফলে ১৯১০ – এর মধ্যে কৃষকরা তাদের জমির কর্তৃত্ব ফিরে পায় । মধ্যযুগীয় জীবন থেকে বেরিয়ে আসার চেষ্টা শুরু করে কৃষকরা । এ প্রসঙ্গে ঐতিহাসিক ই. লিপসন  বলেছেন — কৃষকরা মধ্যযুগের বর্বরতা নিশ্চিহ্ন করতে শুরু করে ( ‘ the peasants were wiping out barbarism of middle ages ‘ ) । 

স্টোলিপিন সংস্কার এর ফলাফল

কুলাক শ্রেণির উন্নতি : 

স্টোলিপিনের সংস্কার দ্বারা নানা আইন প্রবর্তিত হলেও কৃষকদের অবস্থার খুব একটা উন্নতি হয়নি । তার সংস্কার দ্বারা কুলাক শ্রেণির উন্নতি হয়েছিল , এরা কৃষকদের দুর্দশার সুযােগে ওইসব জমি কিনে নিয়ে আরও ক্ষমতাশালী হয়েছিল । 

ভূমিহীন খেতমজুরের সৃষ্টি : 

ক্ষমতাশীল কুলাকদের অধীনে কৃষকরা ভূমিহীন খেতমজুরে পরিণত হয়েছিল ।

জোতদার প্রথার পুনঃপ্রবর্তন : 

স্টোলিপিনের সংস্কার আইনের প্রভাবে রাশিয়ার জোতদার প্রথা পুনরায় মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে । স্টোলিপিন তার সংস্কার আইন সম্পূর্ণ রূপায়ণ করার আগেই বােগরভ নামক এক গুপ্তঘাতকের হাতে মারা যান । এ প্রসঙ্গে ঐতিহাসিক গারশ‍্যেনক্রগ  বলেছেন — স্টোলিপিন বেঁচে থাকলে রাশিয়ার কৃষি ও শিল্পের চেহারায় আমূল পরিবর্তন ঘটত ।

Leave a Comment

error: Content is protected !!