দৃষ্টিহীন শিশুদের বৈশিষ্ট্য

দৃষ্টিহীন শিশুদের বৈশিষ্ট্য

শারীরিক বিকাশ 

দৃষ্টিহীন শিশুদের শারীরিক বিকাশ স্বাভাবিক শিশুদের শারীরিক বিকাশের মতোই হয় । পরীক্ষায় দেখা গেছে , দৃষ্টিহীনতার সঙ্গে শারীরিক বিকাশের কোনো সম্পর্ক নেই । বিশেষ করে দেহের ওজন , উচ্চতা , দৈহিক পেশি প্রভৃতি বৃদ্ধির হার স্বাভাবিক শিশুদের অনুরূপ হয় । কেবল দেহ সঞ্চালনমূলক বিকাশের ক্ষেত্রে কিছু পার্থক্য লক্ষ করা যায় । 

বৌদ্ধিক বিকাশ

দৃষ্টিহীন শিশুদের বৌদ্ধিক বিকাশ স্বাভাবিক শিশুদের তুলনায় কিছুটা কম । মনোবিদ এস. পি. হেইস অন্ধ শিশুদের বুদ্ধি পরিমাপের জন্য বিনের বুদ্ধি অভীক্ষা প্রয়োগ করেন । এই পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে তিনি সিদ্ধান্তে আসেন যে , অন্ধ শিশুরা স্বাভাবিক শিশুদের তুলনায় সামান্য পিছিয়ে থাকে । 

সামাজিক বিকাশ

অন্ধ শিশুদের সামাজিক বিকাশ স্বাভাবিক শিশুদের তুলনায় অনেক কম হয় । পরীক্ষায় দেখা গেছে , দৃষ্টিহীন শিশুরা স্বাভাবিক শিশুদের তুলনায় সামাজিক বিকাশের ক্ষেত্রে সর্বাধিক ৩৮ % পিছিয়ে থাকে । এর মূল কারণ হল অভিভাবকরা অন্ধ শিশুকে সর্বক্ষণ অতিরিক্ত প্রহরায় এবং নিরাপত্তায় রাখেন , যার ফলে তারা সামাজিক হয়ে উঠতে পারে না । 

বাচন ভঙ্গির বিকাশ

দেশে বিদেশে দৃষ্টিহীন শিশুদের বাচন ভঙ্গির বিকাশের ওপর বহু গবেষণা হয়েছে । অধিকাংশ ক্ষেত্রে লক্ষ করা গেছে , অন্ধ শিশুদের মধ্যে বাচনভঙ্গি জনিত কোনো ত্রুটি থাকে না । তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে যে অস্বাভাবিকতা লক্ষ করা গেছে তার কারণ দৃষ্টিহীনতা নয় , অন্য কিছু । 

ভাষাগত বিকাশ

দৃষ্টিহীন শিশুদের ভাষাগত বিকাশ স্বাভাবিক শিশুদের মতোই হয় । তবে দর্শনের সঙ্গে সম্পর্ক যুক্ত বিষয়ে ভাষার বিকাশ স্বাভাবিক শিশুদের তুলনায় কিছুটা কম হয় । এই একটি ক্ষেত্রেই কিছু অসুবিধা দেখা দেয় । অন্যান্য ক্ষেত্রে আর কোনো পার্থক্য নেই ।

error: Content is protected !!