কম্পিউটারের শিক্ষামূলক ব্যবহার 

কম্পিউটারের শিক্ষামূলক ব্যবহার 

বর্তমানে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে শিক্ষা ক্ষেত্রে কম্পিউটারের বিশেষ ব্যবহার দেখা যাচ্ছে । যেমন— 

নতুন বিষয় শেখায় কম্পিউটারের ব্যবহার 

বর্তমানে CAI ( কম্পিউটার সহযোগী নির্দেশনা ) এর সাহায্যে বিভিন্ন বিষয়ে প্রোগ্রামড শিখনের ব্যবস্থা করা হয় । এখানে ছাত্রছাত্রীরা নিজেদের ইচ্ছামতো বিভিন্ন বিষয়ে পাঠ গ্রহণ করতে পারে । প্রতিটি পাঠের শেষে কম্পিউটারের মাধ্যমেই মূল্যায়নের ব্যবস্থা থাকে । ছাত্রছাত্রীরা নিজেরাই বুঝতে পারে তাদের শিখন কোন পর্যায়ে পৌঁছেছে । 

ব্যক্তিগত চাহিদা পূরণে কম্পিউটারের ব্যবহার 

শ্রেণির প্রতিটি ছাত্রছাত্রীর মেধা একরকমের হয় না । কোনো শিক্ষার্থী যদি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই অতিরিক্ত বিষয় পড়তে চায় , সেক্ষেত্রে শিক্ষক শ্রেণিকক্ষে তাকে ব্যক্তিগত ভাবে খুব বেশি সময় দিতে পারেন না । কিন্তু কম্পিউটার একই সময়ে বিভিন্ন ছাত্রছাত্রীর প্রয়োজন অনুযায়ী তথ্য সরবরাহ করতে পারে । এতে অল্পধী , সাধারণ এবং মেধাবী সব শিক্ষার্থীরাই বিশেষভাবে উপকৃত হয় । 

শিখনের পুনঃসংযোজনে কম্পিউটারের ব্যবহার 

পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেসনের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের শিক্ষামূলক বিষয় শিক্ষার্থীদের সামনে সুচারুরূপে উপস্থাপিত করার জন্য কম্পিউটার ব্যবহৃত হয় । বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের শিক্ষা সহায়ক সফটওয়্যারের সাহায্যে বিভিন্ন বিষয় অনুশীলন করা যায় । 

পঠনের ক্ষেত্রে কম্পিউটারের ব্যবহার 

শিক্ষার্থীদের ধ্বনি বা উচ্চারণ শিখনের ক্ষেত্রে , বিভিন্ন ধরনের শব্দকে সিলেবলে ভাগ করার ক্ষেত্রে , কঠিন শব্দ সহজে শেখার ক্ষেত্রে কম্পিউটার ব্যবহৃত হয় । 

শিক্ষক শিক্ষিকাকে সাহায্য করতে কম্পিউটারের ব্যবহার 

বর্তমানে বিভিন্ন ধরনের অভীক্ষা ( Test ) প্রণয়নের ক্ষেত্রে , অভীক্ষার ফলাফল বিশ্লেষণে , ছাত্রছাত্রীদের সফলতা বিফলতার তথ্য সংগ্রহের ক্ষেত্রে কম্পিউটার ব্যবহার করা হয় । 

শিক্ষার অন্যান্য ক্ষেত্রে কম্পিউটারের ব্যবহার 

শিক্ষার্থীদের শিক্ষা-শিখন ছাড়াও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের বিভিন্ন কাজের তথ্য লিপিবদ্ধ করতে , শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আয় ব্যয়ের হিসাব রাখতে কম্পিউটার বিশেষভাবে সহায়তা করে ।

error: Content is protected !!