জেলা শাসকের ক্ষমতা ও কার্যাবলী 

জেলা শাসকের ক্ষমতা ও কার্যাবলী 

জেলা শাসক জেলা প্রশাসনের প্রধান স্তম্ভ । জেলায় তিনি রাজ্য সরকারের মুখ্য প্রতিনিধি । সর্বভারতীয় প্রশাসনিক কৃত্যকের ( IAS ) সদস্যদের মধ্যে থেকে সাধারণত জেলা শাসকরা নিযুক্ত হন । অবশ্য অনেক সময় রাজ্য রাষ্ট্রকৃত্যকের কোনো প্রবীণ সদস্যকে পদোন্নতির মাধ্যমে এই পদে নিয়োগ করা হয় । জেলাশাসকের ক্ষমতা ও কার্যাবলীর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল— 

আইন শৃঙ্খলা রক্ষা সংক্রান্ত 

জেলার আইন শৃঙ্খলা রক্ষা করার মুখ্য দায়িত্ব জেলা শাসকের । আইন শৃঙ্খলা রক্ষার ক্ষেত্রে জেলার পুলিশ বিভাগ জেলা শাসকের নির্দেশ পালন করে । জেলাস্তরে পুলিশ বিভাগের সর্বোচ্চ দায়িত্ব প্রাপ্ত পুলিশ সুপার ( Superintendent of Police– SP ) জেলা শাসকের অধীনস্থ অফিসার হিসেবে কাজ করেন । কোনো সংকটকালীন পরিস্থিতি মোকাবিলা করার ক্ষেত্রে জেলা পুলিশকে জেলা শাসকের নির্দেশের জন্য অপেক্ষা করতে হয় । 

অর্থ সংক্রান্ত 

জেলা শাসক সমগ্র জেলার রাজস্ব বিভাগের প্রধান হিসেবে কাজ করেন । ভূমি রাজস্ব সংগ্রহ , বিশেষ কর ও অন্যান্য সরকারি প্রাপ্য আদায় , জমি জায়গা সংক্রান্ত দলিল দস্তাবেজ সংরক্ষণ ও সাধারণ তত্ত্বাবধান , কৃষিকাজের উন্নতির জন্য দুঃস্থ চাষিদের কৃষি ঋণ প্রদান , কৃষি আয়কর এবং সেচ বাবদ খাজনা সংগ্রহ , সরকারি জমির তত্ত্বাবধান , ভূমি সংস্কার আইন বলবৎ করা এবং ভূমি সংস্কারের কর্মসূচি রূপায়ণ , স্ট্যাম্প আইন কার্যকর করা , প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ নির্ণয় ও সরকারি ত্রাণের বন্দোবস্ত করা ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব জেলা শাসককে পালন করতে হয় । 

তত্ত্বাবধান ও সমন্বয় সাধন সংক্রান্ত 

জেলার প্রধান আধিকারিক হিসেবে জেলা শাসককে যেসব গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করতে হয় তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল জেলার উচ্চপদস্থ সরকারি অফিসারদের কাজকর্ম তত্ত্বাবধান , বদলি ও ছুটি অনুমোদন , জেলার সমস্ত বিভাগের বিভাগীয় আধিকারিক বা অফিসারদের বিভিন্ন কাজকর্মের মধ্যে যথাযথ সমন্বয় সাধন , জেলা পরিকল্পনা রূপায়ণ কমিটির সভায় সভাপতিত্ব করা , সরকারি আদেশের যথাযথ রূপায়ণের ব্যবস্থা করা ইত্যাদি । 

এ ছাড়া স্থানীয় সংস্থাগুলির ( পৌরসভা , গ্রাম পঞ্চায়েত , পঞ্চায়েত সমিতি , জেলা পরিষদ ইত্যাদি ) তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে , জেলার নির্বাচনি আধিকারিক হিসেবে এবং জেলার লোকগণনা বা আদমশুমারি আধিকারিক হিসেবে জেলা শাসক জেলা প্রশাসনের প্রধানরূপে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন । 

উন্নয়ন সংক্রান্ত 

জেলার উন্নয়ন আধিকারিক হিসেবে সমগ্র জেলায় উন্নয়নমুখী পরিকল্পনা গ্রহণ ও তার যথার্থ রূপায়ণে জেলা শাসকের একটি তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে । জেলার বহুমুখী উন্নয়ন প্রকল্পগুলির সঠিক রূপায়ণ জেলা শাসকের সক্রিয় সহযোগিতা ও যোগ্য নেতৃত্বের ওপর নির্ভরশীল । সর্বোপরি জেলার জনগণের সঙ্গে সরকারের যোগসূত্র রচনায় জেলা শাসকের অপরিহার্য ভূমিকা কোনোভাবেই অস্বীকার করা যায় না । 

জেলা পরিষদের কার্যনির্বাহী আধিকারিক হিসেবে জেলা শাসকের একটি ভূমিকা রয়েছে । ক্ষমতা বিকেন্দ্রীকরণ এবং উন্নয়নমূলক কাজকর্মে জনগণের প্রতিনিধিদের সক্রিয় অংশ গ্রহণের ক্ষেত্রে জেলা পরিষদের একটি তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে । এই প্রেক্ষাপটে জেলা শাসকদের সমন্বয় সাধনকারী ভূমিকার ওপরে জেলার সামগ্রিক উন্নয়ন বহুলাংশে নির্ভরশীল । 

অন্যান্য ক্ষমতা 

জেলা শাসককে অন্য যেসব গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করতে হয় তার মধ্যে রয়েছে অপরাধ নিয়ন্ত্রণ , কারাগার পরিদর্শন , বন্দি মুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ , নির্বাচনি ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ , তপশিলি জাতি ও উপজাতিদের পরিচয়পত্র প্রদান , জেলার অনাদায়ি ঋণ আদায় , জেলা প্রশাসনকে নিয়ন্ত্রণ , স্থানীয় সংস্থা ও পৌর সংস্থাগুলির ওপর নিয়ন্ত্রণ , জনসভা , মিছিল , মেলা , বিক্ষোভ , দাঙ্গা বা সাম্প্রদায়িক উত্তেজনাকর পরিস্থিতি মোকাবিলায় উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ প্রভৃতি ।

error: Content is protected !!