লোক আদালতের গঠন ও কার্যাবলী

লোক আদালতের গঠন ও কার্যাবলী

লোক আদালতের গঠন

ভারতের বিচার ব্যবস্থার একটি সাম্প্রতিক মৌলিক সংযোজন হল লোক আদালত । বিচার ব্যবস্থাকে সমাজের সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার উদ্দেশ্যে লোক আদালত গঠিত হয় । ১৯৮৭ সালে ভারত সরকারের আইন মন্ত্রক ‘ আইনগত পরিসেবা কর্তৃপক্ষ বিধি , ১৯৮৭ ’ [ Legal Service Authorities Act , 1987 ‘ ] নামে যে আইন প্রবর্তন করেন তাতে সমাজের দুর্বলতর শ্রেণিকে বিনামূল্যে আইনি সাহায্য দেওয়ার জন্য লোক আদালত গঠনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় । 

১৯৯৪ সালে এই আইনটি সংশোধন করে কেন্দ্র , রাজ্য , জেলা ও তালুকে ‘ আইনগত পরিসেবা কর্তৃপক্ষ ’ গঠন করা হয় । এই কর্তৃপক্ষের হাতে লোক আদালত গঠনের দায়িত্ব দেওয়া হয় । লোক আদালত একজন জেলা বিচারক এবং তাঁর মনোনীত কোনো অধস্তন বিচারক অথবা কোনো ম্যাজিস্ট্রেটকে নিয়ে গঠিত হয় ।

লোক আদালতের কার্যাবলী  

লোক আদালত ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গিতে বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য কাজ করে । আইন আদালত সম্পর্কে যে ধরনের প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রিক ধারণা পোষণ করা হয় লোক আদালত সেরকম নয় । লোক আদালতে জটিল বিষয়গুলি বিচারের জন্য গৃহীত হয় না । সাধারণত 一

1. যেসব মামলার দীর্ঘদিন কোনো নিষ্পত্তি হয়নি , 

2. বিচারের আগে অন্য কোনো আদালত বা বিচার বিভাগীয় কর্তৃপক্ষের পাঠানো বিরোধের বিষয় ইত্যাদি লোক আদালতে বিচারের জন্য গ্রহণ করা হয় । তবে লোক আদালতের বিচারে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলির সম্মতি আবশ্যক । তাই লোক আদালতের বিচারকে একতরফা বিচার বলা যায় না ।

সাধারণত , ক্ষতিপূরণ সম্পর্কিত দাবি , বিবাহ সংক্রান্ত বিরোধ , বিমা কোম্পানিগুলির কাছে অর্থদাবি ইত্যাদি বিষয় লোক আদালতের বিচারাধীন । প্রসঙ্গত বলা যায় , লোক আদালতের রায় চূড়ান্ত । এই রায় মানতে সংশ্লিষ্ট পক্ষগুলি বাধ্য । লোক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে কোনো আপিল করা যায় না । 

উপসংহার 

লোক আদালত একটি বিকল্প বিচারালয় হিসেবে সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে । ব্যয় বহুল ও সময় সাপেক্ষ বিচার বিভাগের চিরাচরিত কাঠামোর বাইরে লোক আদালত এক বিকল্প বিচার ব্যবস্থা উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়েছে । 

জোহারির মতে , লোক আদালত বিবদমান পক্ষগুলির কাছে বন্ধু ও পথ প্রদর্শক হিসেবে এমনভাবে কাজ করে যাতে তারা একটা বোঝাপড়া বা মীমাংসায় পৌঁছোতে পারে ।

error: Content is protected !!