আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে ক্ষমতার গুরুত্ব

আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে ক্ষমতার গুরুত্ব

ক্ষমতাকে কেন্দ্র করে চালিত হয় আন্তর্জাতিক রাজনীতি । আন্তর্জাতিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে রাষ্ট্রের ভূমিকা নির্ধারণে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হল ক্ষমতা । 

আন্তর্জাতিক রাজনীতির অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ 

আন্তর্জাতিক সম্পর্কের বাস্তববাদী তত্ত্বের প্রবক্তাদের মতে , আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে ক্ষমতা সম্পর্কিত ধারণা  খুবই প্রাসঙ্গিক । জাতীয়তাবাদ ও সার্বভৌমত্বের মতো জাতীয় শক্তিকে তাঁরা রাষ্ট্রব্যবস্থার একটি গুরুত্বপূর্ণ ও অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ বলে অভিহিত করেছেন । 

আন্তর্জাতিক সম্পর্কের বাস্তববাদী লেখকদের মতে , ক্ষমতা বা শক্তি হল এমন একটি মাধ্যম যার সাহায্যে কোনো রাষ্ট্র তার অভ্যন্তরীণ নীতি ও পররাষ্ট্রনীতিকে বাস্তবে প্রয়োগ করে থাকে । আন্তর্জাতিক রাজনীতির প্রধান প্রতিপাদ্য বিষয় হল ক্ষমতা অর্জন , প্রয়োগ এবং তার প্রতিষ্ঠা । 

হ্যানস. জে. মরগেনথাউ তাঁর Politics Among Nations গ্রন্থে আন্তর্জাতিক রাজনীতিকে ক্ষমতার লড়াই বলে আখ্যা দিয়েছেন ।

রাষ্ট্রের প্রকৃতি নির্ধারণকারী 

রাষ্ট্রের স্বাধীনতা , নিরাপত্তা ও ভৌগোলিক অখণ্ডতা অক্ষুণ্ণ রাখার স্বার্থে ক্ষমতা বা শক্তির ভূমিকা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ । আন্তর্জাতিক সম্পর্কের বিশ্লেষণে রাষ্ট্রগুলিকে ‘ শক্তি ‘ ( Power ) বলে অভিহিত করা হয়েছে । যেমন — ক্ষুদ্র শক্তি , মাঝারি শক্তি , বৃহৎ শক্তি ও অতিবৃহৎ শক্তি । 

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও সোভিয়েত ইউনিয়ন অতিবৃহৎ শক্তি ( Super power ) হিসেবে পরিচিত ছিল । ১৯৯১ সালে সোভিয়েত ইউনিয়নের অবলুপ্তির পরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একক মহাশক্তিধর রাষ্ট্ররূপে আবির্ভূত হয়েছে । 

পররাষ্ট্রনীতির প্রধান লক্ষ্য 

রাষ্ট্রবিজ্ঞানীদের মতে , আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে ক্ষমতা অর্জন রাষ্ট্রগুলির পররাষ্ট্রনীতির প্রধান লক্ষ্য । মরগেনথাউ এর মতে , শক্তিধর রাষ্ট্রগুলি আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে তাদের লক্ষ্য পূরণের জন্য ক্ষমতার প্রয়োগ ঘটিয়ে থাকে । 

বস্তুত , ক্ষমতা অর্জন না করতে পারলে আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে কোনো রাষ্ট্রের পক্ষে তার অস্তিত্ব বজায় রাখা সম্ভব নয় । আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে ছোটো-বড়ো প্রতিটি রাষ্ট্রের একমাত্র উদ্দেশ্য হল ক্ষমতা অর্জন । 

আন্তর্জাতিক সম্পর্কের অন্যতম বিশেষজ্ঞ জোসেফ ফ্রাঙ্কেল তাঁর International Relations in a Changing World গ্রন্থে এই অভিমত প্রকাশ করেছেন যে , রাষ্ট্রের যদি কামান ও বিমান কেনার সামর্থ্য না থাকে তাহলে আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে নরম ধাঁচের কূটনীতিও সফল হয় না ।

error: Content is protected !!