আইন মেনে চলা হয় কেন

আইন মেনে চলা হয় কেন

আইন মেনে চলার নানান কারণ রয়েছে । তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল—

শাস্তির ভীতি এবং উপযোগিতা 

আইন হল সার্বভৌমের আদেশ । নাগরিকরা কেন আইনের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করে তা নিয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞানীদের মধ্যে মতভেদ রয়েছে । হবস , অস্টিন , বেথাম প্রমুখ রাষ্ট্রবিজ্ঞানীর মতে , নাগরিকরা শাস্তির ভয়ে এবং অরাজক অবস্থা থেকে মুক্তি পাওয়ার আশায় আইন মেনে চলে ।

গ্রিন প্রমুখের বক্তব্য হল , আইনের উপযোগিতাই আইন মেনে চলার প্রধান কারণ । স্যার হেনরি মেইনের মতে শাস্তির ভীতি ও উপযোগিতা এই দুটি কারণেই নাগরিকরা আইন মেনে চলে । 

প্রথা , রীতিনীতি ও গণ ইচ্ছা 

হেনরি মেইন আইনকে শুধুমাত্র সার্বভৌমের আদেশ বলে মেনে নিতে চাননি । মেইনের মতে , সার্বভৌম শক্তি ছাড়াও সমাজের অন্যান্য শক্তির গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আইন সৃষ্টির ক্ষেত্রে সমানভাবে কাজ করে । তাই আইন মানার পিছনে সামাজিক প্রথা , রীতিনীতি , জনগণের ইচ্ছা ও সমর্থন কার্যকরী ভূমিকা পালন করে ।

লর্ড ব্রাইসের মতে নাগরিকদের শ্রদ্ধা , সহানুভূতি , শাস্তির ভয় এবং যৌক্তিকতার উপলব্ধি আইন মেনে চলার কারণ । রাষ্ট্র যখন ছিল না তখনও লোকেরা সামাজিক রীতিনীতি , ধর্মীয় অনুশাসন প্রভৃতি নিয়মকানুন মেনে চলত । কাজেই শুধুমাত্র শাস্তির ভয়ে লোকে আইন মেনে চলে এ যুক্তি আধুনিক রাষ্ট্রবিজ্ঞানীরা মানতে পারেননি । ঐতিহাসিক মতবাদের প্রবক্তারা মনে করেন , প্রচলিত প্রথা ও রীতিনীতির সঙ্গে সম্পর্কহীন আইনকে লোকে মেনে চলে না । 

সামাজিক ঐক্য 

অধ্যাপক হ্যারল্ড ল্যাস্কি প্রমুখ এই অভিমত প্রকাশ করেন যে আইনের উদ্দেশ্য হল সামাজিক কল্যাণ সাধন । আইন সমাজের কল্যাণ সাধন করে বলে লোকে আইন মেনে চলে । রাষ্ট্রের উদ্দেশ্য হল , সামাজিক কল্যাণ সাধনের কাজে আইনকে বিধিবদ্ধ করে জনগণের কাছে প্রচার করা ।

দ্যুগুই এর মতে , আইন হল সমাজের আচার আচরণ নিয়ন্ত্রণকারী কয়েকটি নিয়মকানুন । ব্যক্তি সামাজিক ঐক্যের প্রয়োজনে সচেতনভাবে আইন মেনে চলে ।

error: Content is protected !!