জাতি ও রাষ্ট্রের মধ্যে পার্থক্য 

জাতি ও রাষ্ট্রের মধ্যে পার্থক্য 

অনেক সময় জাতি ও রাষ্ট্রের ধারণাকে অভিন্ন বলে মনে করা হয় । কিন্তু উভয়ের মধ্যে কয়েকটি মৌল প্রভেদ রয়েছে । সেগুলি হল 一

গঠনগত পার্থক্য

সাধারণভাবে জাতি হল জনসমাজের একটি চূড়ান্ত বিকশিত রূপ । ঐক্যবদ্ধ একটি জনগোষ্ঠী যখন অন্যান্য জনগোষ্ঠী থেকে নিজেদের সম্পূর্ণ স্বতন্ত্র মনে করে তখন জাতীয় জনসমাজ গঠিত হয় । পরে জাতীয় জনসমাজের মধ্যে সুগভীর রাজনৈতিক চেতনার জন্ম হলে জাতীয় জনসমাজ জাতিতে রূপান্তরিত হয় । বস্তুত জাতি গঠনের জন্য প্রাথমিকভাবে নির্দিষ্ট ভূখণ্ড , সরকার ও সার্বভৌমিকতা প্রভৃতি উপাদানের প্রয়োজন হয় না । অন্যদিকে , রাষ্ট্র গঠনের পক্ষে এইসব উপাদান একান্তভাবে অপরিহার্য । 

ক্ষমতা প্রয়োগজনিত পার্থক্য

রাষ্ট্রের হাতে রয়েছে এক চূড়ান্ত ক্ষমতা , যা সার্বভৌম ক্ষমতারূপে পরিচিত । এই সার্বভৌম ক্ষমতা রাষ্ট্রের প্রতিনিধিরূপে সরকার প্রয়োগ করে থাকে । সার্বভৌম ক্ষমতা রাষ্ট্রের অভ্যন্তরে এক অসীম ও চরম ক্ষমতা হিসেবে পরিচিত । জাতির হাতে এ ধরনের কোনো ক্ষমতা নেই । 

নির্দিষ্ট ভূখণ্ড সম্পর্কিত পার্থক্য 

রাষ্ট্রের একটি নির্দিষ্ট ভূখণ্ড অবশ্যই থাকা দরকার । রাষ্ট্রের যাবতীয় কাজকর্ম এই নির্দিষ্ট ভূখণ্ডের মধ্যে লক্ষ করা যায় । কিন্তু একটি নির্দিষ্ট ভূখণ্ড জাতি গঠনের পক্ষে অপরিহার্য উপাদান নয় । ভূখণ্ডগত ঐক্য ছাড়াও জাতি গঠিত হওয়ার দৃষ্টান্ত ইতিহাসে রয়েছে । ১৯৪৮ সালে ইজরায়েল রাষ্ট্র গঠিত হওয়ার আগে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা ইহুদিদের কথা দৃষ্টান্ত স্বরূপ উল্লেখ করা যায় । 

ধারণাগত পার্থক্য 

রাষ্ট্রবিজ্ঞানীদের মতে , রাষ্ট্র হল একটি আইনগত ধারণা । রাষ্ট্রীয় বাস্তবতা নিয়ে কোনো বিতর্ক নেই । অন্যদিকে , জাতি একটি ভাবগত ধারণামাত্র । এক ধরনের মনস্তাত্ত্বিক ঐক্যের চেতনা জাতি গঠনের নেপথ্যে সক্রিয় থাকে । 

প্রকৃতিগত পার্থক্য 

রাষ্ট্র ও জাতির মধ্যে প্রকৃতিগত ক্ষেত্রে মৌলিক পার্থক্য বিদ্যমান । রাষ্ট্র একজাতি ভিত্তিক বা বহুজাতি ভিত্তিক — উভয় প্রকারই হতে পারে । ভারত , চিন , মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র প্রভৃতি দেশ বহুজাতি ভিত্তিক । অন্যদিকে জাপান , হাঙ্গেরি , সুইডেন প্রভৃতি একজাতি ভিত্তিক রাষ্ট্র । কিন্তু জাতির ক্ষেত্রে এই শ্রেণি বিভাজন প্রযোজ্য নয় । 

উপসংহার 

পরিশেষে বলা যায় , জাতি ও রাষ্ট্রের মধ্যে প্রভেদ থাকা সত্ত্বেও এ দুটি একে অপরের পরিপূরক হিসেবে কাজ করে । রাষ্ট্র গঠনের মধ্য দিয়ে জাতির পূর্ণতা প্রাপ্তি ঘটে । হায়েসের মতে , একটি ঐক্যবদ্ধ জাতীয় জনসমাজ স্বাধীনতা ও সার্বভৌমিকতা অর্জন করলে জাতি হিসেবে পরিগণিত হয় । 

error: Content is protected !!