তল কাকে বলে

তল কাকে বলে

যার কেবলমাত্র দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ আছে কিন্তু উচ্চতা নেই , তাকে তল বলে । যেহেতু তলের কেবলমাত্র দুটি মাত্রা থাকে তাই তল হল দ্বিমাত্রিক । 

তলের উদাহরণ :

খেলার মাঠ , টেবিলের উপরিভাগ , টিনের চালের উপরিভাগ , বলের উপরিভাগ , সমুদ্রের জলতলের উপরিভাগ ইত্যাদি ।

তলের বৈশিষ্ট্য  

( i ) তল মাত্রই দ্বিমাত্রিক । 

( ii ) তলের কোনো উচ্চতা নেই । 

( iii ) প্রতিটি ঘনবস্তু এক বা একাধিক তল দ্বারা বেষ্টিত । 

( iv ) তল সসীম ( বলের উপরিভাগ ) বা অসীম ( জলতলের উপরিভাগ ) দুই-ই হতে পারে ।

তল কত প্রকার

তল দুই প্রকারের । যথা— ( i ) সমতল ( Plane Surface ) ও ( ii ) বক্রতল ( Curved surface ) ।

সমতল কাকে বলে

যে তলের ওপরে অবস্থিত যে কোনো দুটি বিন্দুর সংযোজক সরলরেখার প্রতিটি বিন্দু সমতলকে স্পর্শ করে থাকে , সেই তলকে সমতল বলে । যেমন — আয়নার কাচ , বাড়ির মেঝে , স্থির জলের উপরিভাগ ইত্যাদি ।

Screenshot 20220610 210321
সমতল

সমতল অসীম , এর কোনো সীমারেখা নেই । আপাতদৃষ্টিতে কোনো ঘনবস্তুর উপরিতল , যেমন সমকোণী চৌপলের উপরিতল বা টেবিলের উপরিতল চার ধার বিশিষ্ট অর্থাৎ সীমারেখা দ্বারা আবদ্ধ সসীম বলে মনে হলেও প্রতিটি ধার আসলে হল দুটি তলের মিলনরেখা ।

বক্রতল কাকে বলে

যে তলের ওপরে অবস্থিত যে কোনো দুটি বিন্দুর সংযোজক সরলরেখার প্রতিটি বিন্দু যদি ওই তলকে স্পর্শ না করে , তবে সেই তলকে বক্রতল বলে । যেমন — এসবেস্টস , ঢেউ যুক্ত জলতল ; বোতলের পার্শ্বতল ইত্যাদি ।

Screenshot 20220610 210321 1
বক্রতল

বক্রতল সসীম ও অসীম দুই প্রকারের হতে পারে । গোলকের উপরিভাগ একটি বক্রতল যা সসীম । আবার , সমুদ্রের জলের উপরিতল যা অসীম বক্রতল বিশিষ্ট ।

error: Content is protected !!