ভারতের পূর্বাঞ্চলে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে ওঠার কারণ

ভারতের পূর্বাঞ্চলে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে ওঠার কারণ

ভারতের পূর্বাঞ্চলের তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলি হল — পশ্চিমবঙ্গের ( ১ ) ফারাক্কা , ( ২ ) দুর্গাপুর , ( ৩ ) ব্যান্ডেল , ( ৪ ) সাঁওতালডিহি , ( ৫ ) কোলাঘাট , ( ৬ ) টিটাগড় ; ঝাড়খণ্ডের ( ৭ ) বোকারো , ( ৮ ) পাত্রাতু , ( ৯ ) চন্দ্রপুরা ; ওড়িশার ( ১০ ) তালচের প্রভৃতি ।

উল্লিখিত তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলি গড়ে ওঠার কারণ গুলি হল一

কয়লার সহজলভ্যতা 

তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে কয়লা পুড়িয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয় । ভারতের পূর্বাঞ্চল দেশের সর্বাধিক কয়লা সমৃদ্ধ এলাকা । পশ্চিমবঙ্গের আসানসোল রানিগঞ্জ , ঝাড়খণ্ডের ঝরিয়া , বোকারো , করণপুরা , রাজমহল , ওড়িশার তালচের , রামপুর প্রভৃতি স্থান কয়লা উৎপাদনের জন্য বিখ্যাত । তাপবিদ্যুৎ উৎপাদনের একমাত্র উপকরণ কয়লা এখানে পর্যাপ্ত পরিমাণে পাওয়া যায় । 

বিদ্যুতের ব্যাপক চাহিদা 

পশ্চিমবঙ্গ , বিহার , ওড়িশা ও ঝাড়খণ্ড — পূর্বাঞ্চলের চারটি রাজ্যই অত্যন্ত জনবহুল । তাছাড়া এখানকার কিছু কিছু অঞ্চল যথেষ্ট শিল্পোন্নত । যেমন — পশ্চিমবঙ্গের হুগলি শিল্পাঞ্চল ও আসানসোল-দুর্গাপুর শিল্পাঞ্চল , ঝাড়খণ্ডের জামশেদপুর-ঘাটশিলা অঞ্চল , সিন্ধি-বোকারো ধানবাদ অঞ্চল ও মুরি-হাতিয়া অঞ্চল , ওড়িশার রৌরকেলা অঞ্চল প্রভৃতি । এর ফলে পূর্বাঞ্চলে বিদ্যুতের ব্যাপক চাহিদা আছে । 

অন্যান্য শক্তি সম্পদের অভাব 

পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিতে খনিজ তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদিত হয় না । পর্যাপ্ত পরিমাণে জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের উপযোগী খরস্রোতা নদীও এখানে বিশেষ নেই । সুতরাং , স্থানীয় কয়লা সম্পদের সাহায্যে তাপবিদ্যুৎ উৎপাদনই পূর্বাঞ্চলে বিদ্যুতের চাহিদা মেটানোর সহজ সমাধান । 

ঐতিহাসিক কারণ 

ইংরেজ শাসনাধীন ভারতে কলকাতা ছিল ইংরেজদের অন্যতম প্রধান কর্মকেন্দ্র । এজন্য তারা কলকাতা ও এর আশেপাশে বিভিন্ন ধরনের শিল্প স্থাপন করেছিল এবং ওইসব শিল্পে প্রয়োজনীয় বিদ্যুতের চাহিদা মেটাতে তারা গড়ে তুলেছিল ক্যালকাটা ইলেকট্রিক সাপ্লাই কর্পোরেশন নামে একটি বিদ্যুৎ সংস্থা , যার অধীনে উৎপাদিত বিদ্যুতের শতকরা ১০০ ভাগই তাপবিদ্যুৎ । ( এই সংস্থার অধীন তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলির মধ্যে আছে মূলাজোড় , কাশীপুর , মেটিয়াবুরুজ , দিশেরগড় , টিটাগড় , বজবজ প্রভৃতি কেন্দ্র । ) 

সরকারি উদ্যোগ 

ভারত সরকার এবং এই অঞ্চলের রাজ্য সরকারগুলির উদ্যোগে যতগুলি বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপিত হয়েছে , তাদের শতকরা ৯৮ ভাগই তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র , যেমন — ব্যান্ডেল , সাঁওতালডিহি , দুর্গাপুর , কোলাঘাট , ফারাক্কা , বোকারো , পাত্রাতু প্রভৃতি । 

অন্যান্য সুবিধা 

এই অঞ্চলে সড়কপথ ও রেলপথে উন্নত পরিবহন ব্যবস্থা , তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষ শ্রমিক ও যন্ত্রপাতি পাওয়ার সুবিধা প্রভৃতিও এখানে তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে তোলার ক্ষেত্রে অনুকূল প্রভাব ফেলেছে ।

error: Content is protected !!