পশ্চিমবঙ্গের জলসেচের প্রয়োজনীয়তা

পশ্চিমবঙ্গের জলসেচের প্রয়োজনীয়তা

ভারতের অন্যান্য অংশের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গের কৃষিকার্যে জলসেচের প্রয়োজনীয়তা বেশি । এর কারণগুলি হল— 

মৌসুমি বায়ুর নির্ভরশীলতা কমানো 

পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টিপাত মূলত দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর ওপর নির্ভরশীল এবং এই মৌসুমি বায়ুর অনিশ্চয়তার জন্য প্রায়ই খরা বন্যা দেখা যায় । রাজ্যের কৃষিতে এই ধরনের অনিশ্চয়তা কাটাতে জলসেচ প্রয়োজন হয় । 

রবি শস্যের চাষ 

পশ্চিমবঙ্গে শীতকাল প্রায় বৃষ্টিহীন থাকে । এমতাবস্থায় শীতকালীন রবি শস্য চাষের জন্য জলসেচের প্রয়োজন হয় । 

উচ্চফলনশীল শস্যের চাষ 

বর্ধিত জনসংখ্যার খাদ্যের চাহিদা মেটানোর প্রধান উপায় উচ্চফলনশীল শস্যের মাধ্যমে চাষ । এজন্য নির্দিষ্ট সময়ে নির্দিষ্ট পরিমাণে জল প্রয়োজন , যা একমাত্র জলসেচের দ্বারাই সম্ভব । 

মৃত্তিকার জলধারণ ক্ষমতার তারতম্য 

পশ্চিমবঙ্গের বিভিন্ন অংশের মৃত্তিকার চরিত্র পৃথক । আবার মৃত্তিকার চরিত্রের ওপর মাটির জলধারণ ক্ষমতা নির্ভর করে । রাজ্যের বিস্তীর্ণ অংশের মোটা গ্রথনযুক্ত মাটির জলধারণ ক্ষমতা কম বলে সেই মাটিতে জলসেচ প্রয়োজন হয় । 

শুষ্ক অঞ্চল 

শুষ্ক অঞ্চলে চাষ আবাদের জন্য জলসেচের প্রয়োজন । যেমন — পশ্চিমের মালভূমি সহ সংলগ্ন অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ অপেক্ষাকৃত কম বলে এখানে জলসেচের বিশেষভাবে প্রয়োজন হয় ।

error: Content is protected !!