পশ্চিমবঙ্গের ভৌগোলিক অবস্থান

পশ্চিমবঙ্গের ভৌগোলিক অবস্থান

ভারতীয় যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম অঙ্গরাজ্য পশ্চিমবঙ্গ পূর্ব ভারতে অবস্থিত । ভারতের 28 টি অঙ্গরাজ্যের মধ্যে আয়তন অনুসারে পশ্চিমবঙ্গের স্থান চতুর্দশ । এই অঙ্গরাজ্যটি দক্ষিণে 21°38´ উত্তর অক্ষাংশ থেকে উত্তরে 27°10´ উত্তর অক্ষাংশ পর্যন্ত বিস্তৃত এবং দ্রাঘিমার দিক থেকে পশ্চিমে 85°50´ পূর্ব থেকে পূর্বে 89°50´ পূর্ব পর্যন্ত বিস্তৃত । কর্কটক্রান্তিরেখা পশ্চিমবঙ্গের মধ্যভাগ বরাবর নদিয়া , পূর্ব বর্ধমান , পশ্চিম বর্ধমান , বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া জেলার ওপর দিয়ে প্রসারিত হয়েছে । 

পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণাংশ বাদে তিনদিক স্থলবেষ্টিত ও জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক সীমানা দ্বারা পরিবেষ্টিত । উত্তর দিকে দার্জিলিং জেলার উত্তর সীমা থেকে দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের সর্বাধিক বিস্তার প্রায় 650 কিমি এবং পশ্চিম থেকে পূর্বে সর্বাধিক বিস্তার প্রায় 325 কিমি । পশ্চিমবঙ্গের উত্তরে আছে সিকিম ও ভুটান , পূর্বে বাংলাদেশ , উত্তর-পূর্বে অসম , পশ্চিমে ঝাড়খণ্ড ও বিহার , দক্ষিণ-পশ্চিমে ওডিশা , উত্তর-পশ্চিমে নেপাল এবং দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর ।

পশ্চিমবঙ্গের ভৌগোলিক অবস্থানের গুরুত্ব 

পশ্চিমবঙ্গ ভারতের পূর্বাংশে অবস্থিত একটি অঙ্গরাজ্য । এর উত্তরে আছে হিমালয় পর্বত ও দক্ষিণে বঙ্গোপসাগর এবং তিনদিকের স্থলসীমানায় আছে ভারতের পাঁচটি অঙ্গরাজ্য ও তিনটি স্বাধীন রাষ্ট্র । নানা দিক থেকে পশ্চিমবঙ্গের এই ভৌগোলিক অবস্থান বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ , যেমন— 

বহিঃশত্রুর হাত থেকে রক্ষা : 

উত্তরে হিমালয় পর্বত থাকায় যেমন উত্তরের ঠান্ডা কনকনে বাতাস পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করতে পারে না , তেমনি বহিঃশত্রুর আক্রমণের হাত থেকেও রাজ্যকে রক্ষা করে । 

আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের প্রসার : 

দক্ষিণে বঙ্গোপসাগরের অবস্থান একদিকে শত্রুর আক্রমণের হাত থেকে পশ্চিমবঙ্গকে রক্ষা করে , অন্যদিকে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যের প্রসারেও রাজ্যকে সাহায্য করে । 

ঋতু বৈচিত্র্য ও জীব বৈচিত্র্যের সৃষ্টি :

পশ্চিমবঙ্গের এই বৈশিষ্ট্যপূর্ণ ভৌগোলিক অবস্থানের কারণেই পশ্চিমবঙ্গে ঋতুবৈচিত্র্য এবং জীববৈচিত্র্যের সৃষ্টি হয়েছে । 

সামরিক , রাজনৈতিক , অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক গুরুত্ব বৃদ্ধি : 

পশ্চিমবঙ্গের সীমানায় তিনটি স্বাধীন রাষ্ট্র ( বাংলাদেশ , নেপাল ও ভুটান ) অবস্থান করায় যেমন পশ্চিমবঙ্গের সামরিক ও রাজনৈতিক গুরুত্ব বেড়েছে , তেমনই পাঁচটি অঙ্গরাজ্য ( ওডিশা , ঝাড়খণ্ড , বিহার , সিকিম ও অসম ) অবস্থান করায় এই রাজ্যের অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক গুরুত্বও বৃদ্ধি পেয়েছে ।

error: Content is protected !!