জীবন বিজ্ঞান

সবাত শ্বসন কাকে বলে

সবাত শ্বসন কাকে বলে

যে শ্বসন পদ্ধতিতে মুক্ত অক্সিজেনের উপস্থিতিতে বায়ুজীবী জীবকোশ মধ্যস্থ শ্বসন বস্তু ( গ্লুকোজ ) সম্পূর্ণরূপে জারিত হয়ে কার্বন ডাই অক্সাইড ও জল উৎপন্ন করে এবং শ্বসন বস্তু মধ্যস্থ শক্তি সম্পূর্ণরূপে নির্গত ( 686 Kcal ) হয় , তাকে সবাত শ্বসন বলে ।

সবাত শ্বসন কোথায় ঘটে

সকল বায়ুজীবি জীবে ( aerobic organism ) অর্থাৎ এককোশী উদ্ভিদ ( ক্ল্যামাইডোমোনাস , ক্লোরেল্লা ) ; এককোশী প্রাণী ( অ্যামিবা ) , বহুকোশী উন্নত উদ্ভিদ এবং প্রাণীদেহের প্রতিটি সজীব কোশে এরূপ শ্বসন ক্রিয়া সংঘটিত হয় । 

সবাত শ্বসন প্রক্রিয়া

সবাত শ্বসনে কোশস্থ খাদ্য প্রধানত গ্লুকোজ অক্সিজেনের উপস্থিতিতে সম্পূর্ণরূপে জারিত হয়ে কার্বন ডাই  অক্সাইড , জল এবং শক্তি উৎপন্ন করে । 

C6H12O6 ( গ্লুকোজ ) + 6O2 ( অক্সিজেন )  → 6CO2 ( কার্বন ডাই অক্সাইড ) + 6H2O ( জল ) + 686 Kcal ( শক্তি )

সবাত শ্বসন প্রক্রিয়াটি দুটি পর্যায়ের মাধ্যমে সম্পন্ন হয় , যথা 一

( 1 ) গ্লাইকোলাইসিস অর্থাৎ গ্লুকোজ অণুর পাইরুভিক অ্যাসিডে পরিণত । 

( 2 ) ক্রেবস চক্র , অর্থাৎ পাইরুভিক অ্যাসিডের পরবর্তী জারণে উৎপন্ন CO2 , জল এবং শক্তি ।

আরো পড়ুন : শ্বসন কাকে বলে

শ্বসন ও শ্বাসকার্যের পার্থক্য 

শ্বসন ও দহনের মধ্যে পার্থক্য

error: Content is protected !!