সালোকসংশ্লেষ এর শর্ত গুলি কি কি

সালোকসংশ্লেষ এর শর্ত গুলি কি কি

সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া কতকগুলি বাহ্যিক ও অভ্যন্তরীণ শর্ত বা প্রভাবক এর উপর নির্ভরশীল । 

সালোকসংশ্লেষ এর বাহ্যিক শর্ত বা প্রভাবক

আলোক ( Light ) : 

অন্যান্য শর্তগুলি স্বাভাবিক থাকলে সালোকসংশ্লেষের হার আলোকের তীব্রতা , প্রকৃতি ও স্থিতিকালের উপর নির্ভর করে । আলোকের তীব্রতা একটি নির্দিষ্ট মাত্রা পর্যন্ত প্রক্রিয়াকে প্রভাবান্বিত করে এবং অতি তীব্রতায় প্রক্রিয়াটি বন্ধ হয়ে যায় ; কারণ প্রধানত অতি তীব্রতায় বাষ্পমোচনের হার বাড়ার ফলে মেসোফিল কোশগুলিতে জলের অভাব দেখা দেয় । আলোকের দৃশ্যমান বর্ণালির ( Visible spectrum ) সাতটি রঙের মধ্যে লাল অংশে সবচেয়ে বেশি সালোকসংশ্লেষ ঘটে । এরপর নীল অংশের স্থান । সবুজ অংশে সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া ব্যাহত হয় । আলোকের স্থিতিকাল বাড়ার সঙ্গে সালোকসংশ্লেষের হার নির্ভর করে । 

কার্বন ডাই অক্সাইড ( Carbon dioxide ) : 

অন্যান্য শর্তগুলি স্বাভাবিক থাকলে এবং বায়ুতে কার্বন ডাই অক্সাইডের পরিমাণ শতকরা 0.03 ভাগ বৃদ্ধি পেলে সংশ্লেষের পরিমাণ বৃদ্ধি পায় । আবার পরিবেশে কার্বন ডাইঅক্সাইডের পরিমাণ মাত্রাতিরিক্ত হলে প্রোটোপ্লাজম বিষাক্ত হয়ে এই প্রক্রিয়া বন্ধ হয় । এটি একটি প্রয়োজনীয় প্রত্যক্ষ শর্ত । 

জল ( Water ) : 

এই প্রক্রিয়ায় কার্বন ডাই অক্সাইড ও জলের রাসায়নিক সংমিশ্রণে উদ্ভিদের জল অঙ্গার খাদ্য মেসোফিল কোশে উৎপন্ন হয় । এই কোশগুলিকে সজীব রাখার জন্যও জলের প্রয়োজন । সুতরাং নির্দিষ্ট পরিমাণ জলের অভাব ঘটলে পত্ররন্ধ্র নিয়ন্ত্রণকারী রক্ষীকোশ ও ক্লোরোপ্লাস্টের কর্মক্ষমতা কমে গিয়ে প্রক্রিয়াটি বিঘ্নিত হয় । মনে রাখা প্রয়োজন যে মূলরোম দিয়ে শোষিত জলের শতকরা মাত্র 1 ভাগ এই প্রক্রিয়ায় ব্যবহৃত হয় । এটি একটি প্রত্যক্ষ শর্ত । 

উষ্ণতা ( Temperature ) : 

অন্যান্য শর্তগুলি স্বাভাবিক থাকলে সাধারণত নির্দিষ্ট পরিমাণ তাপমাত্রা হিসাবে উত্তাপের মাত্রা 20°C থেকে 35°C মধ্যে থাকলে প্রক্রিয়াটি সর্বাপেক্ষা বৃদ্ধি হয় । আবার বেশি তাপমাত্রায় অংশগ্রহণকারী উৎসেচকগুলি বিনষ্ট হওয়ায় প্রক্রিয়াটি বন্ধ হয় । 

অক্সিজেন ( Oxygen ) : 

সাধারণত অক্সিজেনের মাত্রা বৃদ্ধি পেলে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় উৎসেচকগুলির কর্মক্ষমতা কমে যায় বলে সালোকসংশ্লেষের হার কমে যায় । 

রাসায়নিক পদার্থ ( Chemicals ) : 

বিভিন্ন প্রকার রাসায়নিক পদার্থ , যেমন— হাইড্রোজেন সালফাইড , ক্লোরোফর্ম প্রভৃতির উপস্থিতিতে সালোকসংশ্লেষের হার কমে । 

পাতার বয়স ( Age of leaves ) : 

দেখা যায় যে , পাতার বয়স বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে সালোকসংশ্লেষের ক্ষমতা হ্রাস পায় । এক্ষেত্রে পাতার বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ক্লোরোপ্লাস্টের সংখ্যা কমে যায় বলে সালোকসংশ্লেষের হার কমে । 

আরো পড়ুন : সালোকসংশ্লেষ কাকে বলে

সালোকসংশ্লেষ এর অভ্যন্তরীণ শর্ত বা প্রভাবক

ক্লোরোফিল ( Chlorophyll ) : 

ক্লোরোফিলের উপস্থিতি সর্বাপেক্ষা প্রয়োজনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ অভ্যন্তরীণ শর্ত । ক্লোরোফিল ছাড়া কোনো অংশে এই প্রক্রিয়া চলতে পারে না । ক্লোরোফিলের পরিমাণ বৃদ্ধিতে সালোকসংশ্লেষের হার বিশেষ প্রভাব নেই । 

পাতার গঠন ( Internal structure of leaf ) : 

পাতার অভ্যন্তরীণ গঠনে মেসোফিল কলাতন্ত্র , কোশরন্ধ্র , বাতাবকাশ ও রক্ষীকোশ প্রভৃতির সামগ্রিক কর্মক্ষমতার উপর সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া নির্ভর করে । কোশরন্ধ্রের ব্যাসের উপবে এই প্রক্রিয়ার হারের তারতম্য ঘটে । 

সালোকসংশ্লেষীয় পদার্থের সঞ্চয় ( Accumulation of photosynthetic product ) : 

সালোকসংশ্লেষজাত পদার্থ প্রধানত শ্বেতসার মেসোফিল কলায় জমে গেলে সালোকসংশ্লেষের হার কমে যায় । এই পদার্থের অন্যত্র দ্রুত পরিবহনের ফলে এই প্রক্রিয়াব হার বাড়ে । 

প্রোটোপ্লাজম ( Protoplasm ) : 

পরোক্ষভাবে প্রোটোপ্লাজম অভ্যন্তরীণ শর্ত হিসাবে কাজ করে । প্রোটোপ্লাজমের মধ্যে সালোকসংশ্লেষকারী উৎসেচকগুলি থাকে । তাই প্রোটোপ্লাজম সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে । 

উৎসেচক ( Enzymes ) : 

বিভিন্ন উৎসেচকের অংশগ্রহণ সালোকসংশ্লেষ প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিত করে । উৎসেচক সরবরাহ কমলে সালোকসংশ্লেষের হার অনেক কমে যায় ।

আরো পড়ুন : শক্তি চক্রের সঙ্গে সালোকসংশ্লেষের সম্পর্ক

সালোকসংশ্লেষের গুরুত্ব বা তাৎপর্য

error: Content is protected !!