বেদ কয় প্রকার ও কি কি

বেদ কয় প্রকার ও কি কি

বেদ চারটি , যথা — ঋকবেদ , সামবেদ , যজুর্বেদ ও অথর্ববেদ । 

ঋকবেদ : 

অধিকাংশ পণ্ডিতের অনুমান ১৫০০ থেকে ১০০০ খ্রিস্ট পূর্বাব্দের মধ্যে চতুর্বেদের মধ্যে প্রাচীনতম ঋক বেদ রচিত হয়েছিল । প্রকৃতির বর্ণনা ও দেবদেবীর স্তুতিগান এই বেদের বিষয়বস্তু । ঋকবেদে দশটি ‘ মণ্ডল ’ বা বিভাগ ও ১০২৮ টি স্তোত্র আছে । 

সামবেদ : 

সামবেদের স্তোত্রগুলির অধিকাংশ ঋগ্বেদ থেকে সংকলিত । এই স্তোত্রগুলি যজ্ঞানুষ্ঠানের সময় সুর করে গাওয়া হত , তাই এগুলি সামগান নামে পরিচিত । 

যজুর্বেদ : 

যজুর্বেদ হল যাগযজ্ঞের মন্ত্রাদির সংকলন । ঋক , সাম ও যজু — এই তিনটি বেদে সংকলিত স্তোত্রগুলিকে ত্রয়ীবিদ্যা নামে অভিহিত করা হয় । 

অথর্ববেদ : 

অথর্ববেদে রয়েছে জাগতিক সৃষ্টি রহস্য , চিকিৎসাবিদ্যা ও বশীকরণ মন্ত্রাদি । 

প্রতিটি বেদ আবার চারটি খণ্ডে বিভক্ত , যথা — সংহিতা , ব্রাহ্মণ , আরণ্যক ও উপনিষদ । সংহিতা পদ্যে এবং ব্রাহ্মণ গদ্যে রচিত । আরণ্যক ও উপনিষদ হল বেদের দর্শন বিভাগ । সংহিতায় স্তব-স্তুতি ও মন্ত্রাদি এবং ব্রাক্ষ্মণ অংশে বৈদিক মন্ত্রগুলির টীকা ও যাগযজ্ঞের বিধিগুলি উল্লিখিত আছে ।

আরো পড়ুন : বৌদ্ধ ধর্মের উত্থানের কারণ

আধুনিক ভারতের ইতিহাসের উপাদান

যোগ (হিন্দুধর্ম) বলতে কি বোঝো

error: Content is protected !!