জৈন ধর্মের প্রভাব

জৈন ধর্মের প্রভাব

ভারতের আর্থ-সামাজিক , ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক ইতিহাসে জৈন ধর্মের প্রভাব অপরিসীম , এই প্রভাবগুলি নিম্নরূপ —

সহজ সরল ধর্মাচরণের পথ প্রদর্শন 

জটিল ও ব্যয়বহুল যাগযজ্ঞ কেন্দ্রিক বৈদিক ধর্মাচরণের পরিবর্তে ভারতবাসীকে সহজ সরল ধর্মাচরণের পথ দেখিয়েছিল জৈন ধর্ম । 

বর্ণভেদ প্রথার কঠোরতা হ্রাস 

জৈন ধর্মাচার্যদের বর্ণপ্রথার বিরোধিতা ভারতীয় সমাজে জাতপাতের ব্যবধান কমাতে সাহায্য করেছিল । 

ব্যাবসা বাণিজ্যের প্রসার 

জৈন ধর্মের সততা ও মিতব্যয়িতার আদর্শ এবং সুদের কারবার ও সমুদ্র যাত্রাকে স্বীকৃতিদান ব্যাবসা বাণিজ্যের শ্রীবৃদ্ধি ঘটায় । 

কলুষতা মুক্ত সমাজ গঠন 

সৎ কর্মের মাধ্যমে সব মানুষ মোক্ষ লাভ করতে পারবে— জৈন ধর্মের এই শিক্ষা সমাজকে চুরি , ডাকাতি , রাহাজানি , মিথ্যাচার প্রভৃতি কুপ্রভাব থেকে মুক্ত করতে পেরেছিল । জৈন ধর্মে পশু হত্যার বিরোধিতা করা হলে সমাজে পশু হত্যার পরিমাণ হ্রাস পায় । 

শিল্প , সাহিত্য ও ভাষার বিকাশ 

সেকালে নির্মিত উদয়গিরি , খণ্ডগিরি , মাউন্ট আবু এবং শ্রবণাবেলাগোলার জৈন মন্দিরগুলি স্থাপত্য-কলার অনুপম নিদর্শন । সংস্কৃত ভাষায় জৈন পণ্ডিত ও সন্ন্যাসীদের রচিত টীকা-ভাষ্যগুলি সংস্কৃত সাহিত্যের অমূল্য সম্পদ । জৈন পণ্ডিতদের অর্ধমাগধী ভাষায় ধর্মীয় সাহিত্যচর্চা বহু আঞ্চলিক ভারতীয় ভাষাকে সমৃদ্ধ করেছিল ।

পরিশেষে বলা যায় , জৈন ধর্ম বৌদ্ধ ধর্মের মতো ভারতের বাইরে বিস্তার লাভ না করলেও ভারতবর্ষে জৈন ধর্ম আজও স্বমহিমায় উজ্জ্বল । 

আরো পড়ুন : মহাবীরের জীবনী ও তাঁর শিক্ষা

বৌদ্ধ ধর্ম ও জৈন ধর্মের মধ্যে পার্থক্য

বৌদ্ধ ধর্মের উত্থানের কারণ

বৌদ্ধ ধর্মের পতনের কারণ

error: Content is protected !!