ভৌত বিজ্ঞান

রাসায়নিক সমীকরণের সীমাবদ্ধতা

রাসায়নিক সমীকরণের সীমাবদ্ধতা 

রাসায়নিক সমীকরণ থেকে নিম্নলিখিত বিষয়গুলি জানা যায় না – 

( i ) কী কী শর্তে রাসায়নিক বিক্রিয়াটি ঘটে ? 

( ii ) বিক্রিয়াটিতে তাপের উদ্ভব না শোষণ হয় ? 

( iii ) বিক্রিয়াটি দ্রুত গতি সম্পন্ন না মন্থর বা বিক্রিয়াটি হতে কত সময় লাগে ? 

( iv ) বিক্রিয়াকারী ও বিক্রিয়াজাত পদার্থগুলির ভৌত অবস্থা কেমন ? 

( v ) বিক্রিয়াটি উভমুখী কিনা অর্থাৎ বিক্রিয়াজাত পদার্থগুলি বিক্রিয়া করে আবার বিক্রিয়াকারী পদার্থগুলি উৎপন্ন করে কিনা ? 

( vi ) রাসায়নিক বিক্রিয়াটির ক্রিয়াকৌশল কী ? 

তাই রাসায়নিক সমীকরণ লেখার আধুনিক পদ্ধতিতে বিক্রিয়ার প্রকৃতি , পদার্থের ভৌত অবস্থা , তাপের পরিবর্তন প্রভৃতি বোঝানোর জন্য কতকগুলি চিহ্ন ব্যবহার করা হয় । যেমন বিক্রিয়া উভমুখী হলে = চিহ্নের পরিবর্তে চিহ্ন ব্যবহার করা হয় । উৎপন্ন পদার্থ গ্যাসীয় হলে সংকেতের পাশে চিহ্ন এবং অধঃক্ষেপ হলে চিহ্ন ব্যবহার করা হয় । পদার্থের কঠিন , তরল ও গ্যাসীয় অবস্থা বোঝাতে ( s ) , ( l ) , ( g ) প্রভৃতি ব্যবহার করা হয় । তাপ উৎপাদক বা তাপগ্রাহী বিক্রিয়া হলে সমীকরণের ডানদিকে ➕ বা ─ চিহ্ন দিয়ে তাপের পরিমাণ লেখা হয় ।

error: Content is protected !!