দ্রাব ও দ্রাবক কাকে বলে

দ্রাব ও দ্রাবক কাকে বলে

দ্রবণের দুটি অংশ থাকে – ( i ) দ্রাব ( solute ) এবং ( ii ) দ্রাবক ( solvent ) । 

দ্রাব কাকে বলে

দ্রবণে যে উপাদানটির পরিমাণ কম থাকে এবং যে উপাদানটি কঠিন , তরল বা গ্যাসীয় পদার্থে মিশে একটি সমসত্ত্ব মিশ্রণ তৈরি করে , তাকে দ্রাব বলে । 

দ্রাবক কাকে বলে  

দ্রবণে যে পদার্থটি অপেক্ষাকৃত বেশি পরিমাণে থাকে কিংবা দ্রবণটির ভৌত অবস্থা যে পদার্থটির ভৌত অবস্থার মতো হয় তাকে দ্রাবক বলে । 

দ্রাব ও দ্রাবক এর উদাহরণ :

এক গ্লাস জলে এক চামচ চিনি দ্রবীভূত করে দ্রবণ তৈরি করলে চিনিকে বলা হবে দ্রাব এবং জলকে বলা হবে দ্রাবক । 

পরিমাণের উপর নির্ভর করে একটি পদার্থ কখনো দ্রাব আবার কখনো দ্রাবক হতে পারে । যেমন — 80 গ্রাম অ্যালকোহল এবং 20 গ্রাম জলের মিশ্রণে অ্যালকোহল হল দ্রাবক এবং জল হল দ্রাব । একে জলের অ্যালকোহলীয় দ্রবণ বলা যায় । 

কিন্তু 80 গ্রাম জল ও 20 গ্রাম অ্যালকোহলের মিশ্রণে অ্যালকোহল হল দ্রাব এবং জল হল দ্রাবক । একে অ্যালকোহল এর জলীয় দ্রবণ বলা হয় । 

জল একটি উত্তম দ্রাবক । বহু কঠিন , তরল ও গ্যাসীয় পদার্থ জলে দ্রবীভূত হয় । জল সহজলভ্য এবং নিরাপদ । পরীক্ষাগারে দ্রাবকরূপে এর বহুল ব্যবহার রয়েছে । তাই জলকে সর্বজনীন দ্রাবক বলা হয় । জল ছাড়া অ্যালকোহল , কার্বন ডাই – সালফাইড , কার্বন টেট্রাক্লোরাইড প্রভৃতি তরল দ্রাবক হিসাবে ব্যবহৃত হয় ।

error: Content is protected !!