জারক ও বিজারক পদার্থ কাকে বলে

জারক ও বিজারক পদার্থ কাকে বলে

জারক পদার্থ কাকে বলে

জারণবিজারণ ক্রিয়ায় যে পদার্থ অপর পদার্থকে জারিত করে নিজে বিজারিত হয় , অর্থাৎ রাসায়নিক বিক্রিয়ায় যে পদার্থ অন্য পদার্থ থেকে ইলেকট্রন গ্রহণ করে , তাকে জারক পদার্থ বলে । অক্সিজেন , ক্লোরিন , হাইড্রোজেন পার-অক্সাইড , নাইট্রিক অক্সাইড , পটাসিয়াম পারম্যাঙ্গানেট (KMnO4) , পটাসিয়াম ডাইক্রোমেট (K2Cr2O2) প্রভৃতি হলো জারক পদার্থ ।

বিজারক পদার্থ কাকে বলে

জারণবিজারণ ক্রিয়ায় যে পদার্থ অপর পদার্থকে বিজারিত করে নিজে জারিত হয় , অর্থাৎ রাসায়নিক বিক্রিয়ায় যে পদার্থ ইলেকট্রন ত্যাগ করে তাকে বিজারক পদার্থ বলে । গ্যাসীয় হাইড্রোজেন , জায়মান হাইড্রোজেন , হাইড্রোজেন সালফাইড , কার্বন , সোডিয়াম , নাইট্রাস অ্যাসিড (HNO2) , হাইড্রোব্রোমিক অ্যাসিড (HBr) প্রভৃতি হলো বিজারক পদার্থ ।

জারক ও বিজারক পদার্থ এর উদাহরণ : 

ক্লোরিন জলের মধ্যে দিয়ে H2S গ্যাস চালনা করলে Cl2 বিজারিত হয়ে HCI এ পরিণত হয় এবং H2S জারিত হয়ে সালফারে পরিণত হয় ।

IMG ২০২২০৩১৬ ১০২৪০৪1

এখানে Cl2 , H2S কে জারিত করে নিজে বিজারিত হয়ে HCl এ পরিণত হয় । সুতরাং , Cl2 জারক পদার্থ । 

অপরপক্ষে H2S , Cl2 কে HCl এ বিজারিত করে নিজে জারিত হয়ে সালফারে পরিণত হয় । সুতরাং , H2S বিজারক পদার্থ

error: Content is protected !!