পার্শ্বীয় পরিবর্তন কাকে বলে

পার্শ্বীয় পরিবর্তন কাকে বলে

সমতল দর্পণে গঠিত কোনো বস্তুর সমগ্র প্রতিবিম্বটি বস্তুর সাপেক্ষে পাশের দিকে উলটে যাওয়ার ঘটনাকে পার্শ্বীয় পরিবর্তন বলে ।

পার্শ্বীয় পরিবর্তনের কারণ 

সমতল দর্পণে প্রতিবিম্ব দূরত্ব বস্তু দূরত্বের সমান হয় বলে প্রতিবিম্বের পার্শ্বীয় পরিবর্তন ঘটে । 

PPPA1
পার্শ্বীয় পরিবর্তন কাকে বলে

সমতল দর্পণে প্রতিবিম্বের পার্শ্বীয় পরিবর্তন 

MM’ দর্পণের সামনে D অক্ষর ধরলে দর্পণে ওই অক্ষরকে উলটো দেখাবে । অক্ষরটির বিভিন্ন অংশ দর্পণ থেকে বিভিন্ন দূরত্বে থাকায় বিভিন্ন অংশের প্রতিবিম্ব বিভিন্ন দূরত্বে গঠিত হয় । ফলে অক্ষরটিকে পাশের দিকে উলটো দেখাবে । এক্ষেত্রে প্রতিবিম্বের আকার ও বস্তুর আকার কিন্তু একই থাকবে । যেহেতু পরিবর্তন হয় শুধু পাশাপাশি , তাই এই পরিবর্তনকে পার্শ্বীয় পরিবর্তন বলে । 

পার্শ্বীয় পরিবর্তনের ভিত্তিতে প্রদত্ত অক্ষরগুলির বাছাই 

শুধুমাত্র অপ্রতিসম বস্তুর পার্শ্বীয় পরিবর্তন হয় , প্রতিসম বস্তুর হয় না ।

প্রদত্ত অক্ষরকারণ
A , W , O , T – এই অক্ষরগুলির পার্শ্বীয় পরিবর্তন হয় না ।কারণ এই অক্ষরগুলি প্রতিসম । কারণ এই অক্ষরগুলির ডানদিক এবং বামদিকের মধ্যে কোনো পার্থক্য না থাকায় এদের প্রতিবিম্বে পার্শ্বীয় পরিবর্তন হয় না ।
D , P , B , C – এই অক্ষরগুলির পার্শ্বীয় পরিবর্তন হয় ।এই অক্ষরগুলি অপ্রতিসম । কারণ এই অক্ষরগুলির ডানদিক এবং বামদিকের মধ্যে পার্থক্য থাকায় এদের প্রতিবিম্বে পার্শ্বীয় পরিবর্তন হয় ।

আয়নাতে ডান হাতকে বাম হাত বলে মনে হওয়ার কারণ

সমতল দর্পণের সামনে দাঁড়ালে আমাদের ডান হাতকে বাম হাত এবং বাম হাতকে ডান হাত বলে মনে হয় । কারণ , দর্পণে আমাদের শরীরের বিভিন্ন অংশের পার্শ্বীয় পরিবর্তন ঘটে । ফলে , আমাদের শরীরের ডানদিকের অংশের প্রতিবিম্ব সমগ্র প্রতিবিম্বটির বামদিকে এবং বামদিকের অংশের প্রতিবিম্ব ডানদিকে দেখা যায় । তাই , সমতল দর্পণের সামনে দাঁড়ালে আমাদের ডান হাতকে বাম হাত এবং বাম হাতকে ডান হাত বলে মনে হয় ।

সমতল বা অসমতল দর্পণ চেনার উপায় 

দর্পণের সামনে দর্পণের সঙ্গে সমান্তরালভাবে একটি পেনসিল ধরলে যদি পেনসিলের প্রতিবিম্বটি সোজা দেখায় , তাহলে বুঝতে হবে দর্পণটি সমতল । আর যদি প্রতিবিম্ব আঁকাবাঁকা হয় , তাহলে বুঝতে হবে দর্পণটি অসমতল । এর কারণ , পেনসিলের বিভিন্ন অংশ দর্পণ তল থেকে বিভিন্ন দূরত্বে থাকায় ওর বিভিন্ন অংশের প্রতিবিম্ব দর্পণের পিছনে বিভিন্ন দূরত্বে গঠিত হয় । তাই দর্পণ অসমতল হলে প্রতিবিম্ব আঁকাবাঁকা দেখায় ।

স্থির দর্পণ সাপেক্ষে বস্তু ও প্রতিবিম্বের বেগের সম্পর্ক 

মনে করি , দৌড়োনোর পূর্বে ব্যক্তি দর্পণ থেকে d একক দূরে আছে । 

এখন ব্যক্তি থেকে তার প্রতিবিম্বের দূরত্ব = d + d = 2d একক 

দর্পণের দিকে দৌড় শুরুর 1 সেকেন্ড পরে দর্পণ থেকে ব্যক্তির দূরত্ব = ( d – v ) একক 

তখন ব্যক্তি থেকে তার প্রতিবিম্বের দূরত্ব = 2 ( d – v ) একক 

অর্থাৎ , ব্যক্তিটি এক সেকেন্ডে তার প্রতিবিম্বের দিকে [ 2d – 2 ( d – v ) ] বা 2v একক দূরত্ব এগিয়ে যায় । 

সুতরাং , কোনো ব্যক্তি একটি সমতল দর্পণের দিকে v বেগে দৌড়োলে সে তার প্রতিবিম্বের দিকে 2v বেগে এগিয়ে আসবে ।

error: Content is protected !!