বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন কাকে বলে

বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন কাকে বলে 

প্রতিফলকের প্রকৃতি অনুযায়ী প্রতিফলন দু-রকমের হয়— 1. নিয়মিত প্রতিফলন এবং 2. বিক্ষিপ্ত বা অনিয়মিত প্রতিফলন ।

বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন কাকে বলে

সমান্তরাল আলোকরশ্মিগুচ্ছ অমসৃণ তলে আপতিত হলে ওই রশ্মিগুচ্ছের প্রতিটি রশ্মি পৃথকভাবে প্রতিফলনের নির্দিষ্ট নিয়মগুলি মেনে চললেও প্রতিফলিত রশ্মিগুলি একটি নির্দিষ্ট দিকে না গিয়ে বিভিন্ন দিকে ছড়িয়ে পড়ে । আলোকরশ্মির এই ধরনের প্রতিফলনকে বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন বলা হয় । 

বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের উদাহরণ  

ঘরের দেয়াল , মেঝে , টেবিল , চেয়ার , বই , খাতা , ঘষা কাচ ইত্যাদি থেকে আলোর বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন হয় ।

বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের প্রতিবিম্ব দেখা যায় না কেন

বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের ফলে প্রতিফলিত রশ্মিগুলি প্রতিফলক তল থেকে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে । ফলে প্রতিফলিত রশ্মিগুলি কোনো একটি বিন্দুতে মিলিত হয় না বা কোনো বিন্দু থেকে অপসৃত হচ্ছে বলেও মনে হয় না । সেজন্য বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনে প্রতিবিম্ব গঠিত হয় না । অমসৃণ দেয়ালে যেহেতু আলোর বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন হয় তাই এক্ষেত্রে প্রতিবিম্ব দেখা যায় না ।

বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের জন্য বস্তু দৃশ্যমান হয় 

আমাদের চারপাশে যেসব বস্তু আছে তাদের অধিকাংশই অমসৃণ তল যুক্ত । এইসব বস্তুর ওপর আলোকরশ্মি পড়লে বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন হয় । প্রতিফলিত রশ্মিগুলি সব দিকে ছড়িয়ে পড়ে এবং আমাদের চোখে এসে পড়ে । তাই , আমরা বস্তুগুলিকে দেখতে পাই । সুতরাং , বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের জন্যই আমরা কোনো বস্তুকে দেখতে পাই । 

প্রাত্যহিক জীবনে বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের ব্যবহার 

প্রাত্যহিক জীবনে বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের ব্যবহারগুলি হল— 

1. ঘরের মধ্যে যে কোনো স্থানে একটি আলোর উৎস রাখলে ওই উৎস থেকে নির্গত রশ্মিগুলি দেয়াল এবং ঘরের মধ্যস্থ অন্য বস্তুগুলির ওপর আপতিত হয়ে বিক্ষিপ্তভাবে প্রতিফলিত হয় । এই বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের ফলে ঘরের দেয়াল এবং বস্তুগুলিকে আমরা দেখতে পাই । 

2. বইয়ের পাতা খসখসে হওয়ায় আপতিত রশ্মির বিক্ষিপ্ত প্রতিফলনের জন্য আমরা বই পড়তে পারি । 

3. সিনেমার অমসৃণ পর্দায় বিক্ষিপ্ত প্রতিফলন ঘটায় সিনেমা হলের সমস্ত দর্শক সিনেমা দেখতে পায় ।

error: Content is protected !!