গঁদ বা গাম

গঁদ বা গাম

কোনো কোনো উদ্ভিদের কোশ প্রাচীরে সেলুলোজ বিনষ্ট হয়ে নাইট্রোজেন বিহীন , জ‌লে দ্রবণীয় কলয়েড প্রকৃতির যে রেচন পদার্থ সৃষ্টি করে তাকে গঁদ বা গাম বলে । 

গঁদের উদাহরণ : গঁদের আঠা , কর্পূর , বালসাম প্রভৃতি । 

গঁদ বা গাম এর উৎস 

বাবলা , আমড়া , আম , সজিনা , শিরীষ , জিওল প্রভৃতি গাছের ছাল ।

গঁদ বা গাম এর প্রকৃতি

( i ) জটিল কার্বোহাইড্রেট বাতাসের সংস্পর্শে শক্ত হয় , জলের সংস্পর্শে চটচটে হয়ে যায় । 

( ii ) কোলয়েড পদার্থ , বাকলের ক্ষত বা কাটা অংশ দিয়ে ক্ষরিত হয় । 

গঁদ বা গাম এর অর্থকরী গুরুত্ব

( i ) বিভিন্ন শিল্পে , যথা- বই বাঁধাই , কাঠের কাজ , কাগজ , কালি , মুদ্রণ , প্রসাধন , সিগারেট , চকোলেট , ঔষধ প্রভৃতি ক্ষেত্রে , গঁদের প্রয়োজন অপরিহার্য ।

( ii ) অফিসের কাজে , নানা দপ্তরি শিল্পে গঁদের আঠা ব্যবহার করা হয় । 

( iii ) দেওয়ালে চুনকাম করার কাজে গঁদের বিশেষ প্রয়োজন । 

error: Content is protected !!