সেন্ট্রোমিয়ার কাকে বলে

সেন্ট্রোমিয়ার কাকে বলে

index 3
সেন্ট্রোমিয়ার কাকে বলে

ক্রোমোজোমের মুখ্য খাঁজের যে ঘন অংশটি ক্রোমোজোমের ক্রোমাটিডদ্বয়কে পরস্পরের সঙ্গে যুক্ত করে এবং কোশ বিভাজনের সময় বেমতন্তুর সঙ্গে যুক্ত হয় , তাকে সেন্ট্রোমিয়ার বলে । 

সেন্ট্রোমিয়ারের অবস্থান :

সেন্ট্রোমিয়ার ক্রোমোজোমের মুখ্য খাঁজ অংশে থাকে ।

সেন্ট্রোমিয়ারের অবস্থান অনুযায়ী ক্রোমোজোম কয় ধরনের

সেন্ট্রোমিয়ারের অবস্থান অনুযায়ী চার ভাগে ভাগ করা হয়— ( ক ) মেটাসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম , ( খ ) সাবমেটাসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম , ( গ ) অ্যাক্রোসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম , ( ঘ ) টেলোসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম ।

মেটাসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম :

সেন্ট্রোমিয়ার ক্রোমোজোমের ঠিক মাঝখানে থাকলে , সেই সেন্ট্রোমিয়ার যুক্ত ক্রোমোজোমকে মেটাসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম বলে । অ্যানাফেজ দশায় এই প্রকার ক্রোমোজোমকে ইংরেজি ‘ V ’ অক্ষরের মতো দেখায় । 

সাবমেটাসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম :

সেন্ট্রোমিয়ার ক্রোমোজোমের ঠিক মাঝখানে না থেকে প্রায় মাঝামাঝি কোনো অঞ্চলে থাকলে , সেই সেন্ট্রোমিয়ার যুক্ত ক্রোমোজোমকে সাবমেটাসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম বলে । অ্যানাফেজ দশায় এই প্রকার ক্রোমোজোমকে ইংরেজি ‘ L ’ অক্ষরের মতো দেখায় ।

অ্যাক্রোসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম :

যে ক্রোমোজোমের কোনো একপ্রান্তের কাছাকাছি অঞ্চলে সেন্ট্রোমিয়ার অবস্থিত তাকে অ্যাক্রোসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম বলে , অ্যানাফেজ দশায় এই প্রকার ক্রোমোজোমকে ইংরেজি ‘ J ’ অক্ষরের মতো দেখায় । 

টেলোসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম :

যে ক্রোমোজোমের প্রান্তদেশে অর্থাৎ টেলোমিয়ার অঞ্চলে সেন্ট্রোমিয়ার থাকে , তাকে টেলোসেন্ট্রিক ক্রোমোজোম বলে । অ্যানাফেজ দশায় এই প্রকার ক্রোমোজোমকে ইংরেজি ‘ I ’ অক্ষরের মতো দেখায় ।

সেন্ট্রোমিয়ারের কাজ

সেন্ট্রোমিয়ারের কাজগুলি হল —

i. সেন্ট্রোমিয়ার ক্রোমোজোমের ক্রোমাটিডদ্বয়কে পরস্পরের সঙ্গে যুক্ত করে ।
ii. কোষবিভাজনের সময় সেন্ট্রোমিয়ার ক্রোমাটিডকে বেমতন্তুর সঙ্গে যুক্ত করে ।

error: Content is protected !!