জনুক্রম কাকে বলে

জনুক্রম কাকে বলে

জীবের জীবনচক্রে ডিপ্লয়েড ( 2n ) বা অযৌন জনু এবং হ্যাপ্লয়েড ( n ) বা যৌন জনুর পর্যায়ক্রমিক আবর্তনকে জনুক্রম বলা হয় । 

জনুক্রম এর প্রকারভেদ 

হ্যাপ্লয়েড এবং ডিপ্লয়েড দশার স্থায়িত্বের উপর নির্ভর করে জনুঃক্রম প্রধানত দু -প্রকারের হয় । ( I ) হ্যাপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রম ( II ) ডিপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রম  । 

হ্যাপ্লোবায়োন্টিক এবং ডিপ্লোবায়োন্টিক উভয় জনুঃক্রমকে পুনরায় দুভাগে ভাগ করা হয় । এছাড়াও ট্রাইফেজিক নামক বিশেষ প্রকারের জনুক্রম পলিসাইফোনিয়া নামক শৈবালে দেখা যায় ।

হ্যাপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রম :

যে জনুক্রমে হ্যাপ্লয়েড ( n ) এবং ডিপ্লয়েড ( 2n ) দশার মধ্যে যে কোনাে একটি দশা প্রধান , তাকে হ্যাপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রম বলে । এই জনুক্রমকে আবার দুটি ভাগে ভাগ করা হয় । 

হ্যাপ্লন্টিক জনুঃক্রম : যে হ্যাপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রমে ডিপ্লয়েড দশা শুধুমাত্র ভ্রূণাণুতে সীমাবদ্ধ অর্থাৎ স্বল্প সময় যুক্ত হওয়ায় হ্যাপ্লয়েড দশাই প্রধান হয় , তাকে হ্যাপ্লন্টিক জনুক্রম বলে । উদা : স্পাইরােগাইরা । 

ডিপ্লন্টিক জনুঃক্রম : যে হ্যাপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রমে হ্যাপ্লয়েড দশা শুধুমাত্র জনন কোশে সীমাবদ্ধ অর্থাৎ স্বল্পসময় যুক্ত হওয়ায় ডিপ্লয়েড দশাই প্রধান হয় , তাকে ডিপ্লন্টিক জনুক্রম বলে । উদা : মিউকাস । 

ডিপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রম :

হ্যাপ্লয়েড ( n ) এবং ডিপ্লয়েড ( 2n ) উভয়দশাই যে জনুক্রমে সমান তাকে ডিপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রম বলে । ডিপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রম দু-প্রকারের হয় । যথা─

আইসোমরফিক বা সমরূপ জনুক্রম : যে ডিপ্লোবায়োন্টিক জনুক্রমে হ্যাপ্লয়েড ( n ) এবং ডিপ্লয়েড ( 2n ) উভয় দশার উদ্ভিদ একই রকম দেখতে হয় , তাকে আইসোমরফিক বা সমরূপ জনুক্রম বলে । উদা : এক্টোকার্পাস । 

হিটারোমরফিক বা অসমরূপ জনুক্রম : যে ডিপ্লোরায়ােন্টিক জনুক্রমে হ্যাপ্লয়েড এবং ডিপ্লয়েড উভয় দশার উদ্ভিদ পরস্পর থেকে ভিন্ন রকমের হয় , তাকে হিটারোমরফিক বা অসমরূপ জনুক্রম বলে । উদা : ড্রায়োপটেরিস

ট্রাইফেজিক জনুক্রম : 

পলিসাইফোনিয়া নামক শৈবালের জনুক্রমে তিনটি পৃথক দশা , যথা একটি হ্যাপ্লয়েড ( n ) দশা এবং দুটি ডিপ্লয়েড দশা ( 2n ) কার্পো রেণুধর দশা ( 2n ) ও ট্রেটা রেণুধর দশা ( 2n ) পর্যায়ক্রমে আবর্তিত হয় , তাই একে ট্রাইফেজিক জনুক্রম বলে । 

error: Content is protected !!