বাস্তুতন্ত্রে শক্তি প্রবাহের বিভিন্ন পর্যায়

বাস্তুতন্ত্রে শক্তি প্রবাহের বিভিন্ন পর্যায়

কাজ করার সামর্থ্যকে বলা হয় শক্তি । বাস্তুতন্ত্রে রূপান্তরিত সৌরশক্তির উৎপাদক থেকে বিভিন্ন খাদ্যস্তরে খাদকের দেহে স্থানান্তরিত হওয়ার পদ্ধতিকে শক্তি প্রবাহ বলা হয় । বাস্তুতন্ত্রে শক্তি প্রবাহ তিনটি পর্যায়ে ঘটে থাকে— 

( 1 ) শক্তি অর্জন , ( 2 ) শক্তির ব্যবহার ও ( 3 ) শক্তির স্থানান্তর । 

শক্তি অর্জন 

বাস্তুতন্ত্রে সমস্ত পুষ্টিস্তরের শক্তির প্রাথমিক উৎস হল সূর্যরশ্মি । প্রধানত সবুজ উদ্ভিদের সালােকসংশ্লেষ প্রক্রিয়ায় সৌরশক্তি রাসায়নিক শক্তিতে পরিণত হয় । এই রাসায়নিক শক্তি উৎপন্ন খাদ্যের মধ্যে স্থিতিশক্তিরূপে ( Potential energy ) উদ্ভিদ কলায় সঞ্চিত হয় । শক্তির এধরনের সঞ্চয়কে বলা হয় শক্তি অর্জন । 

প্রতি বছর যে পরিমাণ সৌরশক্তি পৃথিবীতে আসে , তা প্রায় 12.3 x 1022 কিলাে ক্যালােরি । এর মাত্র 0.1% সবুজ উদ্ভিদের দেহে স্থিতিশক্তিরূপে শর্করায় সঞ্চিত থাকে । সবুজ উদ্ভিদ যে পরিমাণ স্থিতিশক্তি নিজের দেহে আবদ্ধ করে রাখে , তাকে মােট প্রাথমিক উৎপাদন ( Gross Primary Product ) বলা হয় । উদ্ভিদের রেচন , শ্বসন , পরিপাক ইত্যাদি শারীরবৃত্তীয় কাজে স্থিতিশক্তির কিছুটা ব্যয় হয় ।

মােট প্রাথমিক উৎপাদন থেকে শারীরবৃত্তীয় কাজে খরচ হওয়া শক্তি বাদ দিয়ে যে পরিমাণ শক্তি উদ্ভিদের দেহে সঞ্চিত থাকে তাকে প্রকৃত প্রাথমিক উৎপাদন ( Net Primary Product ) বলা হয় । খাদ্যশৃঙ্খলে উৎপাদক স্তর থেকে খাদক স্তরে প্রকৃত প্রাথমিক উৎপাদনই শক্তি হিসেবে স্থানান্তরিত হয় । একে প্রকৃত শক্তি ( Net Energy ) বলা হয় । 

শক্তির ব্যবহার 

উৎপাদক-পুষ্টিস্তরের প্রকৃত শক্তিই কেবল তৃণভােজীরা গ্রহণ করতে পারে । এভাবে প্রথম সারির খাদকের প্রকৃত শক্তিকে দ্বিতীয় সারির খাদক এবং দ্বিতীয় সারির প্রকৃত শক্তিকে তৃতীয় সারির খাদক গ্রহণ করে । লিন্ডেম্যানের  দশ শতাংশের সূত্র অনুসারে খাদ্যশৃঙ্খলের প্রতিটি ধাপে প্রকৃত শক্তির পরিমাণ 10% হারে কমে ও পরবর্তী উচ্চস্তরে অর্জিত শক্তির পরিমাণও কমে যায় । জীব যে পরিমাণ শক্তি গ্রহণ করে , তার অনেকটাই বিপাক , উন্নতা নিয়ন্ত্রণ , খাদ্য পরিপাক প্রভৃতি শারীরবৃত্তীয় কাজে ব্যয় হয় । একে শ্বসন শক্তি ( Respiratory Energy ) বলে । 

শক্তির স্থানান্তর 

মােট অর্জিত শক্তি থেকে কিছু শক্তি রেচন পদার্থ রূপে জীবদেহের বাইরে বেরিয়ে আসে । এরপর বাদবাকি যতটুকু শক্তি অবশিষ্ট থাকে তা বাস্তুতন্ত্রে উৎপাদক থেকে প্রথম শ্রেণির খাদকে , প্রথম শ্রেণির খাদক থেকে দ্বিতীয় শ্রেণির খাদকে এবং এভাবে পর্যায়ক্রমে ক্রমােচ্চ শ্রেণিতে খাদ্যশৃঙ্খল ও খাদ‍্যজালের মাধ্যমে স্থানান্তরিত হয় ।

error: Content is protected !!