ফুলকে পরিবর্তিত বিটপ বলে কেন

ফুলকে পরিবর্তিত বিটপ বলে কেন

Screenshot ২০২১০৬২৫ ১৭৫৪৫৭
ফুলকে পরিবর্তিত বিটপ বলে কেন

ফুল একটি পরিবর্তিত বা রূপান্তরিত বিটপ’ এই উক্তিটি প্রথম ব্যবহার করেছিলেন জার্মান দার্শনিক উল্ফ গ্যাং ভন গেটে ( Wolf Gang Von Goethe )। আপাতদৃষ্টিতে ফুলের সঙ্গে বিটপের সাদৃশ্য সহজে আমাদের চোখে পড়ে না । কিন্তু উৎপত্তি , অঙ্গ সংস্থানিক বৈশিষ্ট্য ও অন্তর্গঠনের প্রকৃতি বিশ্লেষণ করলে প্রমাণ করা যায় ফুল ও বিটপের গঠন একই প্রকার । বহু দিন ধরে অভিব্যক্তির ফলে বিটপ ফুলে রূপান্তরিত হয়েছে । ফুল একটি রূপান্তরিত বিটপ , এই মতবাদের সপক্ষে যুক্তিগুলি নীচে আলােচনা করা হল ।

পুষ্পাক্ষের প্রকৃতি কান্ডের অনুরুপ

( i ) পুষ্পাক্ষকে একটি ক্ষুদ্র কান্ড বলা যায় । এতে কান্ডে মতাে পর্ব ও পর্বমধ্য থাকে । এরা এত কাছাকাছি সজ্জিত থাকে যে সহজে এদের অস্তিত্ব বােঝা যায় না । পুষ্পপত্রগুলি পুষ্পাক্ষের পর্বে পর পর ঘনভাবে সাজানাে থাকে । চাঁপা , কাঁঠালি চাঁপা  প্রভৃতি উদ্ভিদের পুষ্পাক্ষ কান্ডের মতাে লম্বা হয় এবং এদের পর্বে মুক্তগর্ভপত্রগুলি সর্পিলভাবে সজ্জিত থাকে । 

( ii ) ঝুমকো লতা ফুলে পুষ্পাক্ষ যথেষ্ট লম্বা । তাই এর মধ্যবর্তী পর্ব ও পর্বমধ্যগুলি অনেকটা লম্বা হয় । বৃতি ও দলমন্ডলের মধ্যবর্তী পর্বমধ্যকে অ‍্যান্থোফোর ( Anthophore ) বলে । শ্বেতহুড়হুড়ে ফুলে পাপড়ি ও পুংকেশরের মধ্যবর্তী লম্বা পর্বমধ্যকে অ্যানড্রোফোর ( Androphore ) , পুংকেশর ও গর্ভকেশরের মধ্যবর্তী পর্বমধ্যকে গাইনােফোর ( Gynophore ) বলে । অ‍্যান্থোফোর , অ্যানড্রোফোর ও গাইনােফোরের আকৃতি দেখে বলা যায় এরা কান্ডের রূপান্তর মাত্র । 

( iii ) পুষ্পাক্ষের শীর্ষে স্ত্রীস্তবকের অবস্থানের জন্য পুষ্পাক্ষের বৃদ্ধি সীমিত হয় । কিন্তু অনেকগুলি উদ্ভিদের ক্ষেত্রে পুষ্পাক্ষের অস্বাভাবিক বৃদ্ধির ফলে স্ত্রীস্তবকের উপরে পত্ৰসমন্বিত শাখা সৃষ্টি হয় । এই প্রকার বিটপ জংলি গােলাপ ফুলে ও নাসপাতির ফলের উপরের দিকে অনেক সময় দেখা যায় । একে মনােস্ট্রাস ( Monostrous ) গঠন বলে । 

পুষ্পপত্রের প্রকৃতি পত্রের অনুরূপ

( iv ) ফুলের পুষ্পাক্ষের পর্বে পুষ্পপত্রের ( বৃত্যাংশ , দলাংশ ইত্যাদি ) বিন্যাস অনেকটা পত্রবিন্যাসের মতাে হয় । ফুলের পুষ্পপত্রের বিন্যাস সর্পিল বা আবর্ত । পত্রবিন্যাস ও সর্পিল বা আবর্তাকার হয় । তা ছাড়া পুষ্পপত্রের মুকুলপত্র বিন্যাস এবং বিটপে কচি পাতার বিন্যাস মােটামুটি এক ধরনের হয় । 

( v ) বৃত্যাংশ ও পাপড়িতে পাতার মতাে শিরাবিন্যাস  ও পত্ররন্ধ্র থাকে । 

( vi ) অনেকগুলি উদ্ভিদে , যেমন — পদ্ম , শালুক , ডিজেনেরিয়া প্রভৃতি উদ্ভিদের ফুলের পুংদন্ডের আকৃতি স্ফীত এবং ফলকের মতাে হয় । তাই মনে করা হয় পাতা রূপান্তরিত হয়ে এই ধরনের পুংকেশর গঠিত হয়েছে । 

( vi ) গােলাপ ও পঞ্চমুখী জবার পুংকেশর পাপড়িতে রূপান্তরিত হয় বলে এদের পাপড়ির সংখ্যা অনেক বেশি । তা ছাড়া সর্বজয়া , দুলাল চাঁপা প্রভৃতি ফুলে একটিমাত্র পুংকেশর উর্বর । বাকি পুংকেশরগুলি পাপড়িতে রূপান্তরিত হয় । 

( viii ) সবুজ গোলাপে বৃত্যাংশ পাতার মতাে এবং পাপড়ি ও পাতার মতাে সবুজ বর্ণের হয় । মুসান্ডা উদ্ভিদের ফুলে পাঁচটি বৃত্যংশের মধ্যে যেকোনাে একটি বৃত্যাংশ পাপড়ির মতাে এবং রং সাদা । মুসান্ডা ফিলিপিকা ফুলে পাঁচটি বৃত্যাংশ পাপড়ির মতাে এবং ঘন লাল বর্ণের হয় । 

( ix ) পিওনিয়া উদ্ভিদে পত্র থেকে বৃত্যাংশ এবং বৃত্যাংশ থেকে পাপড়ি গঠনের মাঝামাঝি অবস্থাগুলি সহজে দেখা যায় । 

( x ) মটর ফুলের ডিম্বাশয়ের গঠন অনেকটা ভাঁজ করা , শিরা যুক্ত সবুজ পাতার মতাে হয় । মনে করা হয় সবুজ পাতা রূপান্তরিত হয়ে ডিম্বাশয় গঠিত হয়েছে । জিনিয়া ফুলের ফুলের গর্ভপত্র বৃত্যাংশের মতন । সর্বজয়া ফুলের গর্ভদন্ড পাপড়ির মতাে চ্যাপ্টা ও রঙিন ।

 ( xi ) ড্রিমিস্  , ডিজেনেরিয়া  প্রভৃতি প্রাচীন উদ্ভিদের গর্ভাশয়ে গর্ভদন্ড ও গর্ভন্ড থাকে না । এদের ক্ষেত্রে গর্ভাশয়ের উপরের দিকে চিরুনির দাঁতের মতাে ক্রেস্ট ( Chrest ) গঠিত । ক্রেস্ট পুংরেণু গ্রহণ করে । এসব গর্ভাশয় অনেকটা দেখতে পাতার মতাে হয় । মনে করা হয় পাতা মুড়ে গর্ভাশয়ের উৎপত্তি হয়েছে । 

( xii ) পদ্মফুলে বৃত্যাংশ থেকে গর্ভাশয় পর্যন্ত পর্যবেক্ষণ করলে দেখা যায় বৃত্যাংশ সবুজ এবং ক্রমশ দলাংশ এবং দলাংশ থেকে পুংকেশর এবং পুংকেশর থেকে গর্ভকেশর গঠিত হয়েছে । এদের মাঝামাঝি অবস্থাগুলি সুস্পষ্টভাবে দেখা যায় । সুতরাং বৃত্যাংশ থেকে ভিতরে বিভিন্ন অঙ্গগুলি ক্রমশ বুপান্তরিত হয়েছে । 

পুষ্প মুকুলের অঙ্গজ মুকুলে রূপান্তর 

( xiii ) গ্লোবা , পেঁয়াজ প্রভৃতি উদ্ভিদে পুষ্পমুকুল বুলবিল নামে অঙ্গজ মুকুলে রূপান্তরিত হয় । বুলবিল মাটিতে পড়ে অনুকূল পরিবেশে নতুন উদ্ভিদ সৃষ্টি করে । 

উপরের যুক্তি ও প্রমাণ থেকে পরিষ্কার ভাবে প্রমাণিত হয় , ফুল প্রকৃতপক্ষে একটি পরিবর্তিত বিটপ । তা ছাড়া বিখ্যাত বিজ্ঞানী ইমস ( Eames , 1960 ) বহু উদ্ভিদের সংবহন কলার গঠন , বিভিন্ন ফুলে এর গঠন বিন্যাস ইত্যাদি পরীক্ষানিরীক্ষা করে বলেছেন ফুল হল প্রকৃতপক্ষে রূপান্তরিত বিটপ ।

error: Content is protected !!