গ্রন্থি কন্দ কী

গ্রন্থি কন্দ কী 

Screenshot ২০২১০৬১৭ ১১০৪১২4
গ্রন্থি কন্দ কী

যেসব ভূনিম্নস্থ কান্ড খাদ্য সঞ্চয়ের ফলে রসালো , স্ফীত ও অনিয়তাকার হয় , কান্ডে পর্ব , পর্বমধ্য ও শল্কপত্র ধারণ করে তাদের গ্রন্থি কন্দ বা রাইজোম বলে ।

উদাহরণ — আদা ( Zingiber officinale ) , হলুদ ( Curcuma domestica ) , আম-আদা ( Curcuma dulcus ) , ফার্ন প্রভৃতি । 

মানকচুর ( Alocasia indica ) কান্ড মৃদগত ও রাইজোম জাতীয় হলেও এটি অনুভূমিকভাবে বর্ধিত না হয়ে মাটির ওপর খাড়াভাবে অবস্থান করে । এইরূপ রাইজোমকে মূলাকার কান্ড বা রুট স্টক ( root stock ) বলে ।

গ্রন্থি কন্দের বৈশিষ্ট্য

গ্রন্থি কন্দের বৈশিষ্ট্যগুলি হল— 

( i ) মাটির নীচে সমান্তরালভাবে বাড়ে । 

( ii ) কান্ডে পর্ব ও পর্বমধ্য থাকে । 

( iii ) পর্ব থেকে শল্কপত্র ( scale ) উৎপন্ন হয় । 

( iv ) শল্কপত্রের কক্ষে মুকুল থাকে । একে কাক্ষিক মুকুল বলে । 

( v ) কান্ড ও শাখার শীর্ষে অগ্ৰমুকুল জন্মায় । 

( vi ) কাক্ষিক মুকুল থেকে নতুন শাখা ও অগ্ৰমুকুল থেকে ভৌম পুষ্পদন্ড ( Scape ) গঠিত হয় । 

( vii ) প্রতিকূল অবস্থায় পুরােনাে শাখাগুলি শুকিয়ে গিয়ে পত্ৰক্ষত ( Leaf scar ) সৃষ্টি করে । 

( viii ) স্ফীত কান্ডের নীচের দিকের পর্ব থেকে অস্থানিক মূল উৎপন্ন হয় ।

error: Content is protected !!