সামাজিক বনসৃজন ও কৃষি বনসৃজন এর পার্থক্য

সামাজিক বনসৃজন ও কৃষি বনসৃজন এর পার্থক্য

সামাজিক বনসৃজন এবং কৃষি বনসৃজন এর পার্থক্য গুলি হল 一

মূল উদ্দেশ্য :

সামাজিক বনসৃজন : পরিবেশ সুরক্ষা ও গরিব গ্রামীণ সম্প্রদায়ের আর্থ-সামাজিক উন্নতি ।

কৃষি বনসৃজন : কৃষকের নিজস্ব আয় বৃদ্ধির সঙ্গে পরিবেশ দূষণ রোধ ও অনুৎপাদক জমিকে উৎপাদনশীল করে তোলা ।

বনসৃজনের স্থান :

সামাজিক বনসৃজন : অব্যবহৃত জমি , অনুৎপাদক ও পতিত জমি , যেমন রেললাইন বা রাস্তার ধারের খাস জমিতে কিংবা খাল-নদী প্রভৃতির ধারে ।

কৃষি বনসৃজন : কৃষকের নিজস্ব জমিতে ।

উদ্যোগ :

সামাজিক বনসৃজন : সাধারণত যৌথ উদ্যোগ এবং সামাজিক প্রকল্পের অন্তর্গত ।

কৃষি বনসৃজন : ব্যক্তিগত উদ্যোগ , সামাজিক পরিকল্পনার অধীন হতে পারে বা নাও হতে পারে ।

প্রাপ্ত দ্রব্য :

সামাজিক বনসৃজন : ফলমূল , জ্বালানি কাঠ , পশুখাদ্য ও বনের কিছু উপজাত দ্রব্য , যেমন মধু , মোম ইত্যাদি ।

কৃষি বনসৃজন : প্রধানত জ্বালানি , আসবাবপত্র তৈরিতে কাঠ ,  সবুজ সার , ওষুধ , ফলমূল প্রভৃতি ।

2 thoughts on “সামাজিক বনসৃজন ও কৃষি বনসৃজন এর পার্থক্য”

Leave a Comment

error: Content is protected !!